১৪০৪ জনকে ডিঙ্গিয়ে মেধাতালিকায় প্রথম ‘মেরী'
১৪০৪ জনকে ডিঙ্গিয়ে মেধাতালিকায় প্রথম ‘মেরী'

পুলিশ কনেস্টবল নিয়োগ

১৪০৪ জনকে ডিঙ্গিয়ে মেধাতালিকায় প্রথম ‘মেরী'

বাগেরহাট প্রতিনিধি  

বাগেরহাট সরকারী পিসি কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী মেহেরুন নেছা মেরী। সে এবার পুলিশ কনেস্টবল নিয়োগের শারীরিক, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় ১ হাজার ৪০৪ জন নিয়োগ প্রত্যাশীকে পেছনে ফেলে সম্মিলিত মেধা তালিকায় প্রথম হয়েছে। বাগেরহাট সদর উপজেলার বিজয়পুর গ্রামের রাজমিস্ত্রি মো. আজগর আলীর কন্যা মেরীর এই সফলতার আনন্দে ভাসছে পরিবার ও এলাকাবাসী।  

মেরী মাধ্যমিক পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগে জিপিএ-৫ পেয়েছিলো।

স্বপ্ন ছিলো পুলিশ ক্যাডারের কর্মকর্তা হওয়ার। কিন্তু রাজমিস্ত্রী বাবার উপার্জনে সংসার চালানোই দায় বলে পুলিশে যোগ দিতে লাইনে দাড়িয়েছিলেন। এরপর সব প্রতিযোগীদের ডিঙ্গিয়ে সে প্রথম হয়।

প্রথম স্থান অর্জন করা মেহেরুন নেছা মেরী বলেন,ক এক সময় ভাবতাম, ঘুষ ও সুপারিশ ছাড়া চাকরি হয় না। কিন্তু এখন সব ধারণা পাল্টে গেছে। আমার জন্য কেউ কোন সুপারিশ করেনি। আমার বাবা রাজমিস্ত্রির কাজ করে যা পায়, তা দিয়ে চারজনের সংসার চালানোই দায়। এর পরে আবার ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ুয়া বোনের লেখাপড়ার খরচ দিতে বাবার খুব কষ্ট হয়।

বাগেরহাট পুলিশ সুপার কেএম আরিফুল হক বলেন, শতভাগ মেধা ও যোগ্যতার ভিত্তিতে আমরা পুলিশ কনেস্টবল পদে চাকরি দিয়েছি। আমরা চেষ্টা করেছি মেধাবীদের পুলিশ সদস্য হিসেবে কাজ করার সুযোগ দেওয়ার। ভবিষ্যতেও সকল নিয়োগে স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা ও মেধার ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়ার আশ্বাস দেন তিনি।

news24bd.tv/arkabul