সুন্দরবনের শরণখোলা ও চাঁদপাই রেঞ্জে মধু আহরণ শুরু
সুন্দরবনের শরণখোলা ও চাঁদপাই রেঞ্জে মধু আহরণ শুরু

সুন্দরবনের শরণখোলা ও চাঁদপাই রেঞ্জে মধু আহরণ শুরু

শেখ আহসানুল করিম, বাগেরহাট

সুন্দরবনের দুই বিভাগের মধ্যে পূর্ব বিভাগের শরণখোলা ও চাঁদপাই রেঞ্জে শুরু হয়েছে মধু আহরণ। শুক্রবার (১ এপ্রিল) শরণখোলা ও চাঁদপাই রেঞ্জ থেকে পাস দেওয়া শুরু হয়েছে মৌয়ালদের। প্রথম দিনে দুই বিভাগ থেকে মোট প্রায় ৬৫টি নৌকার বিপরীতে এক হাজারের অধিক জন মৌয়াল পাস গ্রহণ করেছেন।

মৌয়ালরা জানান, নৌকা প্রস্তুত, পাস, রসদ সামগ্রী একেকটি নৌকায় ৫০ হাজার থেকে ৬০ হাজার টাকা খচর হয়েছে।

সব কিছুতেই দ্বিগুণ খরচ এবার। গতবছর মধুর পরিমাণ তুলনামূলক কম হয়েছে। এ বছর কেমন হবে তা বোঝা যাচ্ছে না।

শরণখোলা স্টেশন কর্মকর্তা (এসও) মো. আসাদুজ্জামান জানান, প্রথম দিন শরণখোলা স্টেশন থেকে ৪৮টি নৌকায় পাস দেওয়া হেয়েছে। জনপ্রতি ১২৯৯ টাকা ৫০ পয়সা এবং প্রতি ১০ কুইন্টাল মধুতে ১০টাকা রাজস্ব নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রতিটি নৌকায় ১৫ দিনের জন্য মধু আহরণের পাস দেওয়া হয়েছে।

সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক (এসিএফ) মো. শহিদুল ইসলাম জানান, দুটি রেঞ্জের চারটি স্টেশন থেকে প্রথম দিনে মধুর আহরণের জন্য মোট ৬৫টি পাস দেওয়া হয়েছে। এ বছর ১০৫০ কুইন্টাল মধু ও ৩৫০ কুইন্টাল মোম আহরণের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, এ বছর ১৫ মার্চ মধু আহরণের মৌসুম ঘোষণা করে বন বিভাগ। কিন্তু, ওই তারিখ থেকে পশ্চিম সুন্দরবন বিভাগে মধুর আহরণ শুরু হলেও পূর্ব বিভাগে বনাঞ্চলে খলিসা প্রজাতির গাছ কম থাকায় মৌয়ালরা আগাম পাস গ্রহণ করেননি।

news24bd.tv/ তৌহিদ

;