ইউক্রেনের রাস্তায় রাস্তায় ছড়িয়ে রয়েছে মৃত দেহ

ইউক্রেনের রাস্তায় রাস্তায় ছড়িয়ে রয়েছে মৃত দেহ

মাসুদ রানা

ইউক্রেনের কয়েকটি শহর থেকে সেনা সরিয়ে নিয়েছে রাশিয়া, তবে এসব শহরের রাস্তায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে মৃত দেহ। মিলছে গণকবরের সন্ধান। শহরগুলো যেন হয়ে উঠেছে জলজ্যান্ত মৃত্যুপুরী।  ইউক্রেনের দাবি, কিয়েভের আশপাশের এলাকাগুলো রুশ সেনাদের কাছ থেকে তারা পুনরায় দখলে নিয়েছে।

যদিও সেনা প্রত্যাহারের বিষয়টিকে শান্তি আলোচনার অগ্রগতি হিসেবে দেখছে রাশিয়া। এদিকে মস্কোর সেনারা সরে গেলেও উদ্বেগ কমছে না ইউক্রেনের। দেশটির প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির দাবি, পূর্ব ও দক্ষিণ ইউক্রেন দখল করতে চাচ্ছে রাশিয়া।

কিয়েভের রাস্তায় রাস্তায় এখন ইউক্রেনের সেনাবহর।

গেল কয়েক সপ্তাহ ধরে রাজধানী ও এর আশপাশের কয়েকটি শহর ও গ্রাম পুনর্দখলে নিতে রুশ বাহিনীর সঙ্গে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছিলো দেশটির সেনারা। এবার কিয়েভ ও এর পার্শ্ববর্তী অঞ্চল সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার দাবি করছে তারা।  তবে রুশ সেনাদের ছেড়ে যাওয়া শহরগুলোর রাস্তায় রাস্তায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকতে দেখা গেছে মৃতদেহ, সন্ধান মিলছে একাধিক গনকবর। ইউক্রেনের বুচা শহরের একটি গণকবরেই প্রায় ৩০০ জনকে সমাহিত করা হয়েছে।  

ইউক্রেন এক বাসিন্দা জানান, আমার পিছনের দৃশ্যগুলো খুব মারমান্তিক। আমরা দুই সপ্তাহ ধরে বেজমেন্টে বসে ছিলাম। আর কয়দিন হলে সেখানেই মরে থাকতাম। রাশিয়া বলছে, শান্তি আলোচনার অংশ হিসেবে কিয়েভ থেকে সৈন্য প্রত্যাহার করা হচ্ছে।  ইউক্রেনীয় প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি সতর্কতা উচ্চারণ করে জানিয়েছেন, রাশিয়া ইউক্রেনের পূর্ব ও দক্ষিণাঞ্চল দখল করতে চায়।

জেলেনস্কি বলেন, আমাদের সেনারা কিয়েভে জয়ী হয়েছে, তবে রাশিয়ার সৈন্যদের লক্ষ্য তারা দোনবাস এবং ইউক্রেনের দক্ষিণাঞ্চল উভয়ই দখল করতে চায়। আর আমাদের লক্ষ্য স্বাধীনতা।  এর মাঝে কিয়েভের দাবি, রাশিয়ার সেনাবাহিনী দক্ষিণে ইজিউম শহরের নিয়ন্ত্রণ নিচ্ছে। পূর্বের শহরগুলোতে বোমা হামলা চালাচ্ছে। দোনবাসের লুহানস্ক অঞ্চলে আবাসিক ভবনগুলো রাশিয়ার গোলা হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

News24bd.tv/রিমু