শিগগিরই ইউক্রেনে অভিযান শেষ হবে : রাশিয়া
শিগগিরই ইউক্রেনে অভিযান শেষ হবে : রাশিয়া

সংগৃহীত ছবি

শিগগিরই ইউক্রেনে অভিযান শেষ হবে : রাশিয়া

নিবিড় আমীন

অদূর ভবিষ্যতেই ইউক্রেনে অভিযান শেষ হবে বলে প্রত্যাশা করছে রাশিয়া। ক্রেমলিন বলছে, হয় রুশ বাহিনী ইউক্রেনে নিজেদের লক্ষ্যে  পৌঁছাবে, নয়তো একটি চুক্তিতে পৌঁছাবে মস্কো ও কিয়েভ। তবে বিশ্বকে দীর্ঘ সংঘাতের জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে বলে জানিয়েছে ন্যাটো। এদিকে বুচা শহরের তুলনায় বোরোদিয়াঙ্কার পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ বলে বৃহস্পতিবার মন্তব্য করেছেন ইউক্রেনীয় প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি।

 

গেল ২৪ ফেব্রুয়ারি থেকে ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরু করেছিল রাশিয়া। সেই অভিযানের ৪২ তম দিনে ক্রেমলিনের পক্ষ থেকে জানানো হলো- খুব শিগগিরিই শেষ হতে যাচ্ছে তাদের অভিযান। আর সেটা হয় ইউক্রেনে নিজেদের লক্ষ্য অর্জনের মাধ্যমে, আর নয়তো কিয়েভের সাথে চুক্তিতে। স্কাই নিউজকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানালেন ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ।

সাক্ষাৎকারে ইউক্রেনে নিজেদের সেনাদের উল্লেখযোগ্য ক্ষয়ক্ষতির কথাও শিকার করেন পেসকভ। বলেন, কিয়েভের নিকটবর্তী শহরগুলোতে রুশবাহিনী গণহত্যা চালিয়েছে বলে যে অভিযোগ উঠেছে, তা সম্পূর্ণই জাল।

তিনি বলেন, এই নৃশংসতার সাথে রুশ সামরিক বাহিনীর সম্পর্ক থাকতেই পারেনা। আমরা জাল এবং মিথ্যার দুনিয়ায় বাস করছি। রাশিয়া সমস্ত অপরাধের স্বাধীন ও বস্তুনিষ্ঠ তদন্তে সত্যি সত্যিই আগ্রহী।

বৃহস্পতিবার ন্যাটোর পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সাথে বৈঠক শেষে ন্যাটো মহাসচিব জেনস স্টোল্টেনবার্গ জানিয়েছেন, ইউক্রেনের প্রতি সমর্থন জোরদারে সম্মত হয়েছে ন্যাটো সদস্যরা। সেইসাথে দেশটিকে বিস্তৃত অস্ত্র ব্যবস্থা প্রদান করছে। তবে এ যুদ্ধ দীর্ঘায়িত হলে তা ইউক্রেন ছাড়িয়ে ছড়ানোর আশংকা রয়েছে। আর প্রতিরোধের ব্যবস্থা নিচ্ছে ন্যাটো।

একইদিনে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি জানিয়েছেন, বোরোদিয়াঙ্কা শহরের ধ্বংস্তূপ সরানোর কাজ শুরু হয়েছে। সেখানকার চিত্র বুচার চেয়েও ভয়ংকর। আরও বেশি আক্রমণের হয়েছে শহরটি।

এদিকে জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শোলজ বৃহস্পতিবার বলেছেন, ইউরোপীয় ইউনিয়নের নিষেধাজ্ঞার অধীনে রুশ কয়লার উপর নিষেধাজ্ঞা কার্যকর করতে পুরো চার মাসের ফেস আউট সময় ব্যাবহার করতে হবে জার্মানিকে।

news24bd.tv/রিমু