ভুট্টাক্ষেতে মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণ, পরে আপসের চেষ্টা 
ভুট্টাক্ষেতে মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণ, পরে আপসের চেষ্টা 

প্রতীকী ছবি

ভুট্টাক্ষেতে মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণ, পরে আপসের চেষ্টা 

অনলাইন ডেস্ক

এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে জোর করে ভুট্টাক্ষেতে তুলে নিয়ে ওড়না দিয়ে মুখ বেঁধে একাধিকবার ধর্ষণ করে আদর ইসলাম নামে এক যুবক।  নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে এই ঘটনা ঘটে। আদর ইসলাম উপজেলার নিতাই ইউনিয়নের পানিয়ালপুকুর ফরুয়াপাড়া গ্রামের নূর আলমের ছেলে। বৃহস্পতিবার রাতে ভুক্তভোগী ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে আদরকে আসামি করে এ মামলা দায়ের করেন।

 

জানা যায়, চাচার বাড়িতে ইফতার করে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ওই মাদ্রাসাছাত্রী নিজ বাড়িতে ফিরছিল। এ সময় প্রতিবেশী যুবক আদর ইসলাম তার মুখ চেপে ধরে পাশের ভুট্টাক্ষেতে নিয়ে যায়। সেখানে তার পরনের ওড়না দিয়ে মুখ বেঁধে একাধিকবার ধর্ষণ করে। পরে ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার জন্য স্থানীয় মাতবররা দুই দিন ধরে চেষ্টা চালান।  

এ ব্যাপারে ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মনোয়ারুল ইসলাম জানান, যতটুকু শুনেছি ধর্ষণের ঘটনা সত্য। বিষয়টি আপসের চেষ্টা করা হয়েছে। ছেলেপক্ষ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের কথা না রাখায় মেয়ে পক্ষ আইনের আশ্রয় নিয়েছেন।  

কিশোরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাজীব কুমার রায় ধ্ষণের মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।
news24bd.tv/আলী