রোজা রেখে ওজন কমানোর উপায়
রোজা রেখে ওজন কমানোর উপায়

সংগৃহীত ছবি

রোজা রেখে ওজন কমানোর উপায়

অনলাইন ডেস্ক

রমজান মাসে মুসলিমগণ সাদিক থেকে শুরু করে সূর্যাস্ত পর্যন্ত রোজা রাখে। দীর্ঘ সময় খাবার গ্রহণ থেকে বিরত থাকার পর ইফতারে অনেকে বেশি খেয়ে ফেলে যা ওজন বেড়ে যাওয়ার অন্যতম কারণ। চিকিৎসক ও স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা রোজা ভাঙার সময় উচ্চ ফ্যাটযুক্ত খাবার এড়িয়ে যেতে বলেছেন। গবেষণা বলছে, রোজা রেখে যারা অনিয়ন্ত্রিত খাওয়া-দাওয়া করে মাস শেষে তাদের ওজন বেড়ে যায়।

কিছু ছোট বিষয় খেয়াল রাখলে রমজানে ওজন বাড়ানো তো দূরে থাক বরং কমানো সম্ভব। চলুন জেনে নেই--

ব্যালেন্সড ডায়েট :

অতিরিক্ত চিনি ও তেলেভাজা খাবার খাওয়ার চেয়ে ফাইবার জাতীয় খাবার যেমন সবজি, ফলের প্রতি গুরুত্ব দিন। সেই সাথে কার্ব জাতীয় খাবারও খেতে পারেন। এই জাতীয় খাবারগুলো দীর্ঘক্ষণ পেট ভরা রাখতে সাহায্য করে। স্বাস্থ্যকর খাবারে ক্যালোরিও কম থাকে এবং ওজনও নিয়ন্ত্রণে রাখে।

চিনির গ্রহণ কমানো :

সারাদিন রোজা রাখার পর ইফতারে চিনি খেলে তৎক্ষণাৎ শক্তি ফিরে আসে শরীরে।  তবে কিছুক্ষণ পরেই অলস লাগা শুরু হয়। চিনিতে অনেক বেশি পরিমাণ ক্যালোরি রয়েছে যা ওজন বাড়ায়। আপনি যখন রোজা ভাঙবেন তখন কী পরিমাণ চিনি খাচ্ছেন  সে বিষয়টি অবশ্যই মাথায় রাখতে হবে।

ধীরে ধীরে খাদ্য গ্রহণ :

রোজা খোলার পর একসাথে সব খাবার খেয়ে নেবেন না। সময় নিয়ে আস্তে আস্তে খাবার খান। সারাদিন পর পেটে হুট করে খাবার গেলে বুঝতেও সময় লাগে। দ্রুত খাবার খেলে আপনার মস্তিষ্ক সিগনাল দিতে পারেনা যে আপনার পেট ভরা। এজন্য খাবার ভালোভাবে চিবিয়ে খান।

অল্প অল্প করে খাওয়া :

একবারে ইফতারে খুব বেশি খাবার না খেয়ে ভাগ করে খান। ইফতারের ঘণ্টা দুই পর রাতের খাবার খেয়ে নিন। রাতের খাবার ফ্যাট, কার্ব, প্রোটিন যেনো থাকে সে বিষয়ে অবশ্যই খেয়াল রাখবেন। এর সাহরির সময়ে সাহরি খান।

পানির চাহিদা পূরণ :

সারাদিনে শরীরে যে পরিমাণ পানির চাহিদা হয় তা পূরণ করতে ইফতার থেকে সেহেরি পর্যন্ত দুই থেকে তিন লিটার পানি পান করতে হবে। পানিযুক্ত খাবার বা পানিজাতীয় ফল খাবার তালিকায় রাখুন। শরীর থেকে টক্সিন জাতীয় পদার্থ বের হওয়ার জন্য পানি অনেক গুরত্বপূর্ণ।

হাঁটাচলা করা :

ইফতার বা রাতের খাবারের পর হুট করে শুয়ে পড়বেন না। কিছুক্ষণ হাঁটাহাটি করুন। খাবারের পর হাটলে হজমও ভালো হয়। সেই সাথে যাদের গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা আছে তাদের ক্ষেত্রেও ভালো।

সূত্র : দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া

news24bd.tv/এমি-জান্নাত