আজ সন্ধ্যা থেকে মাগফিরাতের বৃষ্টি 
আজ সন্ধ্যা থেকে মাগফিরাতের বৃষ্টি 

সংগৃহীত ছবি

আজ সন্ধ্যা থেকে মাগফিরাতের বৃষ্টি 

অনলাইন ডেস্ক

বছরের শ্রেষ্ঠ মাস পবিত্র রমজানুল মোবারক। পবিত্র কোরআন অবতীর্ণ হওয়ার মাস এই রমজান। এ মাসে একটি রাত রয়েছে যা এক হাজার মাস অপেক্ষা উত্তম। আল্লাহ তাআলার পক্ষ থেকে পবিত্র এই মাস মানবজাতির জন্য সর্বিশেষ নিয়ামত ও অনুকম্পার।

এই মাসে মুসলিম উম্মাহ অন্য মাসের তুলনায় বহু গুণে বেশি আমল করে থাকেন। দেখতে দেখতে রমজানে রহমতের দশক শেষ হচ্ছে আজ। আজ সন্ধ্যা থেকে শুরু হচ্ছে মাগফিরাতের দশদিন। এই দশদিনে আল্লাহর পক্ষ থেকে রোজাদার মানুষদের মাঝে মাগফিরাতের রাস্তার খুলে দেয়া হবে।

মাগফিরাত মানে ক্ষমা। দুনিয়ার সব গোনাহগার মানুষের জন্য চিরস্থায়ী শান্তি ও মুক্তির দিশারী এ মাগফিরাতের দশক। এ দশকে বান্দার ক্ষমা লাভ আল্লাহর বিশেষ অনুগ্রহ।  হজরত সালমান ফারসি (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এরশাদ করেন, ‘রমজানের প্রথম ১০ দিন রহমতের, দ্বিতীয় ১০ দিন মাগফিরাত লাভের এবং তৃতীয় ১০ দিন জাহান্নাম থেকে নাজাত প্রাপ্তির। ’ (মিশকাত)।

ক্ষমা লাভের বিশেষ দোয়া

মাগফিরাতের দশকে ক্ষমা লাভের একটি দোয়া আমরা বেশি বেশি করতে পারি।

উচ্চারণ : ‘আল্লাহুম্মা হাব্বিব ইলাইয়্যা ফি-হিল ইহসান; ওয়া কাররিহ ফিহিল ফুসুক্বি ওয়াল ই’সইয়ান; ওয়া হাররিম আলাইয়্যা ফি-হিস সাখাত্বা ওয়ান নিরানা বিআ’ওনিকা ইয়া গিয়াছাল মুসতাগিছিন। ’

অর্থ : ‘হে আল্লাহ! এ দিনে সৎ কাজকে আমার কাছে প্রিয় করে দাও। আর অন্যায় ও নাফরমানিকে অপছন্দনীয় করো। তোমার অনুগ্রহের উসিলায় আমার জন্য তোমার ক্রোধ ও যন্ত্রণাদায়ক শাস্তি হারাম করে দাও। হে আবেদনকারীদের আবেদন শ্রবণকারী ‘

জাবের ইবনে আবদুল্লাহ রাদিয়াল্লাহু আনহু বলেন, জিবরাইল (আ.) এসে রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে বললেন, ‌ধ্বংস হোক ওই ব্যক্তি, যে রমজান মাস পাওয়ার পরও নিজের গোনাহ মাফ করিয়ে নিতে পারল না।  তখন রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন, ‘আমিন’।  

আরেক হাদিসে এসেছে, ‘যে ব্যক্তি রমজান মাস পেল, কিন্তু এ মাসেও তাকে ক্ষমা করা হলো না; সে আল্লাহতায়ালার রহমত থেকে চিরবঞ্চিত ও বিতাড়িত। ’ (মুসতাদরাকে হাকিম)।

আরও পড়ুন : রমজানের অতি গুরুত্বপূর্ণ তিন আমল

তাই মাগফিরাত প্রত্যাশী সব মোমিন বান্দার উচিত, আজ সন্ধ্যা থেকেই তারাবির নামাজ যথাযথ আদায় করে চোখের পানি ফেলে আল্লাহর কাছে ক্ষমা চাওয়া। অসহায় ব্যক্তিদের ইফতার করানোর মাধ্যমে গোনাহ মাফের চেষ্টা করা।  রাতের ইবাদত-বন্দেগির সঙ্গে সঙ্গে রাতে আল্লাহর সাহায্য কামনায় হাদিসের ওপর আমল করা ইত্যাদি। তবেই মাগফিরাত বা গোনাহ থেকে ক্ষমা লাভ করা সম্ভব।  

তাছাড়া মুসলমান হিসেবে সবার উচিত, পবিত্র রমজানের মাগফিরাতের এই দশ দিনে আল্লাহতালার ক্ষমার বৃষ্টিতে নিজেকে ভিজিয়ে নেওয়ার সর্বোচ্চ চেষ্টা করা। বেশি বেশি ইবাদত করা ও আল্লাহতালার নিকট ক্ষমা প্রার্থনা  করা।

news24bd.tv/আলী

;