পুলিশ হেফাজতে যুবকের মৃত্যুর অভিযোগ
পুলিশ হেফাজতে যুবকের মৃত্যুর অভিযোগ

প্রতীকী ছবি

পুলিশ হেফাজতে যুবকের মৃত্যুর অভিযোগ

অনলাইন ডেস্ক

রবিউল ইসলাম খান (২৫) নামে এক যুবকের মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার রাত ১২টার দিকে ঘটনাটি ঘটে।  লালমনিরহাটে পুলিশ হেফাজতে গার্মেন্টকর্মী নিহত রবিউল ইসলাম খান সদর উপজেলার মহেন্দ্রনগর ইউনিয়নের দুলাল খানের পুত্র। স্বজনদের দাবি, পুলিশি নির্যাতনে তার মৃত্যু হয়েছে।

পুলিশ ও স্বজনরা জানায়, লালমনিরহাট সদর উপজেলার হারাটি ইউনিয়নের হিরামানিক এলাকায় বৈশাখ উপলক্ষে মেলা চলছিল।  মেলা-সংলগ্ন এলাকায় জুয়ার আসর বসে। খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার রাত আনুমানিক ১১টার দিকে সদর থানার পুলিশ সেখানে অভিযান চালায়। এ সময় রবিউল ইসলাম খানসহ (২৫) দুইজনকে আটক করে পুলিশ। এদের মধ্যে রবিউল ইসলাম খান অসুস্থ হয়ে পড়লে রাত ১২টার দিকে পুলিশ তাকে চিকিৎসার জন্য লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে। হাসপাতালের জরুরি বিভাগে চিকিৎসা চলাকালীন রবিউল ইসলাম খান মারা যায়।

তার মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে রাতে এলাকাবাসী ও তার স্বজনরা রংপুর-লালমনিরহাট মহাসড়কের মহেন্দ্রনগর বটতলা এলাকায় রাস্তায় কাঠের গুঁড়ি ফেলে ও টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন। এ সময় পুলিশের একটি পিকআপ ভাঙচুর করে উত্তেজিত জনতা। সড়ক অবরোধের কারণে মহাসড়কে প্রায় ৪ ঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ থাকে। সড়কের দুপাশে বিপুলসংখ্যক পণ্যবাহী ট্রাক ও বাস আটকা পড়ে। ভোর চারটার দিকে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে উত্তেজিত জনতাকে আশ্বস্ত করলে তারা চলে যায়। পরে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

নিহতের মা সাহেরা বেগম ও তার স্বজনরা দাবি করে বলেন, পুলিশ রবিউলকে পিটিয়ে ও নির্যাতনে হত্যা করেছে। তারা হত্যার বিচার দাবি করেন।

জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রবিউল ইসলাম জানান, মেলায় জুয়া খেলা চলছে এই খবর পেয়ে পুলিশ সেখানে অভিযান চালিয়ে রবিউলসহ দুজনকে আটক করে। এ সময় রবিউল অসুস্থতা বোধ করলে তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। একপর্যায়ে সে মারা যায়। কীভাবে তার মৃত্যু হয়েছে, তা ময়নাতদন্ত শেষে জানা যাবে।

news24bd.tv/কামরুল 

;