আশুলিয়ায় হিজাব পরে কারখানায় ঢুকতে বাঁধা, বিক্ষোভ
আশুলিয়ায় হিজাব পরে কারখানায় ঢুকতে বাঁধা, বিক্ষোভ

সংগৃহীত ছবি

আশুলিয়ায় হিজাব পরে কারখানায় ঢুকতে বাঁধা, বিক্ষোভ

নাজমুল হুদা, সাভার

সাভার আশুলিয়ার ইয়াং জিন ইন্টারন্যাশনাল কোম্পানি লিমিটেডের কারখানায় হিজাব পরে ঢুকতে বাঁধা দেওয়া হয় নারী শ্রমিকদের। এরপর প্রতিবাদী শ্রমিকরা উক্ত কারখানার সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেন। শনিবার সকাল থেকে আশুলিয়ার বগাবাড়ি আল্ট্রা মাঠ সংলগ্ন এলাকার সামনে তারা অবস্থান নেন।  

শ্রমিকদের অভিযোগ, ওই কারখানায় প্রায় সহস্রাধিক শ্রমিক কাজ করেন।

কারখানার ‘উইগ সেকশন-ডব্লিউ ৪’ এ কাজ করেন ৫৯ জন নারী শ্রমিক। তারা সবাই হিজাব পড়ে কাজ করেন। কিন্তু কারখানা কর্তৃপক্ষ তাদেরকে হিজাব পরতে নিষেধ করেন।  তারা আরো জানায়, কর্তৃপক্ষের কথা না মানলে কোন শ্রমিককেই কারখানায় প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি।
কারখানার শ্রমিক ললিতা বলেন, আমাকে এডমিন রুমে ডেকে নিয়ে হিজাব খুলতে বলা হয়। হিজাব খুললে ২০০ টাকা পুরষ্কারও দিতে চায় তারা। আর যদি হিজাব না খোলা হয়, তাহলে শ্রমিকদের ২০০ টাকা জরিমানা স্বরূপ কেটে নেওয়া হয়।  

অভিযোগ বিষয়ে জানতে চাইলে উইগ সেকশন-ডব্লিউ ৪ এর সুপারভাইজার ফেরদৌস তালুকদার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে নিউজ টোয়েন্টিফোরকে বলেন, ’আমার সেকশনের নারী শ্রমিকদের হিজাব খোলার দায়িত্ব দিয়ে আমাকে অর্থের প্রলোভন দেখিয়েছে এডমিন হাশেমসহ কারখানা কর্তৃপক্ষ। কিন্তু শ্রমিকরা হিজাব পরে আসায় তাদের হিজাব ও বোরখা খুলে নেওয়ার চেষ্টা করা হয়। এছাড়া সেকশনের ফ্যান বন্ধ করে গরমের মধ্যে শ্রমিকদের শাস্তি দেওয়া হয়। ’ 

তিনি আরো বলেন, ’হিজাব পরে কাজ করতে সমস্যা হয় না-এমন কথা শ্রমিকরা বারবার বললেও কর্তৃপক্ষ তা মানতে নারাজ। যখন কোনভাবেই হিজাব খুলতে পারেনি, তখন পুরো সেকশনের শ্রমিকদের বের করে দেওয়া হয়েছে।  

এসব বিষয়ে জানতে কারখানার এডমিন ম্যানেজার হাশেম ইমরানের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।  

স্বাধীন বাংলা গার্মেন্টস শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশনের সাভার আশুলিয়া আঞ্চলিক কমিটির সভাপতি আল-কামরান বলেন, ‘শ্রমিকদের হিজাব পড়ায় শাস্তি হিসাবে ২০০ টাকা কেটে নেওয়া, টানাটানি করে হিজাব খোলার চেষ্টা করা অত্যন্ত অন্যায় কাজ। আমরা কারখানা কর্তৃপক্ষকে বলবো, হিজাব নিয়ে বাড়াবাড়ি করবেন না। নচেৎ এলাকাবাসী, শ্রমিক শ্রেণিসহ সর্বস্তরের লোকজনকে নিয়ে আমরা আন্দোলনে নামবো। ’

এ বিষয়ে শিল্পপুলিশ -১ এর উপ-পরিদর্শক (এসআই) মিরন বলেন, ‘আমরা ঘটনাস্থলে এসেছি এবং বিষয়টি জানার চেষ্টা করছি। অভিযোগ পেলে সঠিক ঘটনা জেনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। ’

news24bd.tv/desk