চলন্ত বাসে দুই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর জামা কাটার অভিযোগ, আটক ১
চলন্ত বাসে দুই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর জামা কাটার অভিযোগ, আটক ১

সংগৃহীত ছবি

চলন্ত বাসে দুই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর জামা কাটার অভিযোগ, আটক ১

সাভার প্রতিনিধি

সাভারে চলন্ত বাসে বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রীর জামার পেছনের কিছু অংশ কেটে দেয়ার অভিযোগে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। শনিবার সাভারের হেমায়েতপুর এলাকায় এঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী এক শিক্ষার্থী বাদী হয়ে মামলা দায়ের করলে গাজীপুর জেলার কাপাশিয়া থানার রায়েদ এলাকার মৃত হাশেম আলীর ছেলে  হারুন-অর-রশীদকে (৫৩) আটক করে পুলিশ।

ভূক্তভোগী এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘আমি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতকোত্তর শ্রেণির শিক্ষার্থী।

আমার ফুফাতো বোন একই বিশ্ববিদ্যালয়ে সান্ধ্যকালীন এমবিএতে পড়াশোনা করেন। আজ সকালে ফুফুর বাসা আজিমপুর যেতে দুজনে প্রান্তিক ফটক থেকে বাসে উঠি। হেমায়েতপুরের কাছাকাছি পৌঁছালে পেছন থেকে কিছু একটা স্পর্শের অনুভূতি পাই। প্রথমে ভেবেছি, হয়তো কেউ আমার সিটের পেছনের দিকে পা তুলে বসেছে।
পরে পুনরায় একই ঘটনা ঘটলে আমি হাত  দিয়ে দেখি, আমার জামার পেছনের নিচের দিকে বেশ কিছু অংশ কাটা। পরে দেখি, আমার ফুফাতো বোনেরও একইভাবে জামা কেটে দেয়া হয়েছে। পেছনে বসা লোকটি সিট থেকে উঠে দ্রুত বাস থেকে নেমে যেতে চাইলে আমার চিৎকারে অন্যান্যরা তাঁকে ধরে ফেলেন।  

সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী মাঈনুল ইসলাম জানান, এ ঘটনার সাথে জড়িত একজনকে আটক করা হয়েছে। মামলায় আটক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আগামীকাল ঢাকার মুখ্য বিচারিক আদালতে পাঠানো হবে।

 

news24bd.tv/desk

সম্পর্কিত খবর