স্তন-নিতম্বের ছবি তুলতে ওঁৎ পেতে থাকেন পাপারাজ্জি : সোনম
স্তন-নিতম্বের ছবি তুলতে ওঁৎ পেতে থাকেন পাপারাজ্জি : সোনম

স্তন-নিতম্বের ছবি তুলতে ওঁৎ পেতে থাকেন পাপারাজ্জি : সোনম

অনলাইন ডেস্ক

নারী শরীরকে কেবল কুৎসিত ভাবেই দেখা হয় বলে মন্তব্য করেছেন অনিল কাপুর কন্যা সোনম। বলেছেন, বিনোদন জগতে অভিনেত্রীরা আজও পণ্য। তাঁদের খোলামেলা ছবি যেভাবে ভাইরাল হয়, সাধারণ ছবি তেমন নজর কাড়ে না।

নেটমাধ্যমের উপর ক্ষোভ উগরে দিলেন অভিনেত্রী সোনম কপূর আহুজা।

বললেন, ‘নেট দুনিয়ার চরিত্র এখন ভীষণ অদ্ভুত, নারী শরীরকে কেবল কুৎসিত ভাবেই দেখা হয়।

আনন্দবাজারের খবরে প্রকাশ, আগস্ট মাসেই মা হতে চলেছেন সোনম। কিছু দিন আগে দাদু হওয়ার আনন্দের কথা ভাগ করে নিয়েছিলেন সোনমের বাবা অনিল কপুর। এদিকে অন্তঃসত্ত্বা সোনমের মন ভালো নেই। সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে অভিনেত্রী জানান, সাধারণ ছবি পোস্ট করলে আশানুরূপ প্রতিক্রিয়া পান না। লাইক, মন্তব্যের বন্যা তখনই বয়, যখন একটু যৌন আবেদনমূলক ছবি পোস্ট করা হয়। ‌‘এটাই যেন এখনকার হাওয়া,’।

সোনম বলেন, ‘অভিনেত্রীদের অপমান করার জন্য পাপারাজ্জিরা সারাক্ষণ ওৎ পেতে থাকে। ফোন ক্যামেরায় ছবি তোলার সময় তাঁদের স্তন এবং নিতম্বের গড়ন ইচ্ছে করে জুম করে দেখানো হয়। গা থেকে পোশাক সরে যাওয়ার ছবি হরদম ভাইরাল হয়। সে নিয়ে কোনও প্রতিবাদ হয় না। ’

সেই সঙ্গে অনিল-কন্যার দাবি, সুন্দর পোশাক পরা ছবির তুলনায় একটি খোলামেলা ছবিতে তিনি ১০ গুণ বেশি প্রতিক্রিয়া পেতে পারেন। তাই বলে কি তিনি তেমনটাই করবেন? এ ধরনের কুরুচিকর দর্শকদের সুরসুরি জুগিয়ে যাবেন?

গত কয়েক মাসে ইনস্টাগ্রামে ছবি পোস্টের ক্ষেত্রে অনেকটাই সাবধানী সোনম। বেশির ভাগ সময়ে তিনি ‘থ্রোব্যাক’ অর্থাৎ পুরনো ছবি দিতেন। বাকি ছবিগুলোতে সোনম নিজের শারীরিক পরিবর্তন আড়াল করেছেন সুকৌশলে। কখনও বসা বা দাঁড়ানোর ভঙ্গিতে, কখনও আবার ঢলঢলের পোশাকের আড়ালে মাতৃত্বের চিহ্ন লুকিয়েছেন তিনি। কেন? অভিনেত্রীর দাবি, পাপারাজ্জির অশ্লীল নজর থেকে বাঁচার জন্যই তিনি এ পথে হেঁটেছেন।

সোনমের দুঃখ, তাঁর কনিষ্ঠ সহকর্মীরা কেউ কেউ এখন আগুনের দিকেই ঝাঁপ দিতে ছুটছেন। তাঁর কথায়, ‘বেশি লাইক পাবেন বলে নায়িকারাও এখন প্লাস্টিক সার্জারি করিয়ে ঠোঁট পুরু করছেন, শরীর নিয়ে আরও কত কী-ই না কাটা ছেঁড়া করছেন। কিন্তু এতে তাঁদের দোষ দেখি না। নেটমাধ্যমে জনপ্রিয়তা ধরে রাখতে এ ছাড়া আর কী-ই বা করার আছে?’

সোনমের প্রশ্ন, এর শেষ কোথায়? সমাজের রুচি বদলেছে বলে নারীদেরও কি কেবল নীচে নামতে হবে?

স্বামী আনন্দ আহুজার সঙ্গে সোনম এখন দিল্লিতে। অনাগত সন্তানের জন্মের অপেক্ষায় দিন কাটছে দম্পতির। ২০১৯ সালে ‘দ্য জোয়া ফ্যাক্টর’ ছবিতে শেষ বার পর্দায় দেখা গিয়েছিল সোনমকে। তবে মা হওয়ার পরেই পুরোদমে কাজ শুরু করবেন অভিনেত্রী। তাঁকে দেখা যাবে রহস্য-রোমাঞ্চ ছবি ‘ব্লাইন্ড’-এ।

news24bd.tv তৌহিদ