স্ত্রীকে নিয়ে আবেগঘন পোস্টের পর ঘরে এলো স্বামীর লাশ!
স্ত্রীকে নিয়ে আবেগঘন পোস্টের পর ঘরে এলো স্বামীর লাশ!

সংগৃহীত ছবি

স্ত্রীকে নিয়ে আবেগঘন পোস্টের পর ঘরে এলো স্বামীর লাশ!

অনলাইন ডেস্ক

দেখতে দেখতে আজ বিবাহিত জীবনের ১৩টি বসন্ত পুরে গেল। কিন্তু আমার কাছে মনে হয় এইতো সেদিন যেন শুভপরিণয় হয়েছিল আমার ও প্রিয়তমা তোমার। এভাবেই  নিজেদের ১৩তম বিবাহবার্ষিকী উপলক্ষে স্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন যুবলীগ নেতা রবিউল হোসেন সেলিম। কিন্তু কে জানতো খানিক পরেই তার জন্য অপেক্ষা করছিল মৃত্যু।

রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মিরসরাই উপজেলার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের জোরারগঞ্জ বিএসআরএম গেট এলাকায় বাসের ধাক্কায় নিহত হন সেলিম।  

দুর্ঘটনায় নিহত হবার পুর্বে যুবলীগ নেতা রবিউল হোসেন সেলিম স্ত্রীকে নিয়ে ফেসবুকে লিখেন, দেখতে দেখতে আজ বিবাহিত জীবনের ১৩টি বসন্ত পুরে গেল। কিন্তু আমার কাছে মনে হয় এইতো সেদিন যেন শুভপরিণয় হয়েছিল আমার ও প্রিয়তমা তোমার। প্রিয়তমা, তুমি এই সংসার ও আমার জন্য অনেক করে যাচ্ছো, আজকের এই দিনে তোমাকে জানাই অভিনন্দন, শুভেচ্ছা ও অনেক অনেক কৃতজ্ঞতা। ’

নিহত সেলিম জোরারগঞ্জ ইউনিয়নের পশ্চিম সোনাপাহাড় এলাকার মো. আবু তাহেরের ছেলে। তিনি উপজেলা রাজনীতির পাশাপাশি ঠিকাদারি ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন।

স্থানীয় মোহাম্মদ সালমান ফারসি জানান, বাড়ি থেকে বেরিয়ে ব্যবসায়িক কাজে যাচ্ছিলেন সেলিম। বিএসআরএম গেট এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক পার হওয়ার সময় বেপরোয়া গতিতে আসা একটি বাসের ধাক্কায় তিনি গুরুতর আহত হন। পরে তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

জোরারগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন বলেন, ঢাকামুখী একটি বাসের ধাক্কায় সেলিম নিহত হন। বাসটি উদ্ধার করা হয়েছে। আইনি প্রক্রিয়া শেষে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

news24bd.tv/আলী