স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যার ১৪ বছর পর স্বামী গ্রেফতার!
স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যার ১৪ বছর পর স্বামী গ্রেফতার!

সংগৃহীত ছবি

স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যার ১৪ বছর পর স্বামী গ্রেফতার!

অনলাইন ডেস্ক

যশোরের অভয়নগরে ২০০৮ সালের ১৫ জানুয়ারি রাতে নিজ ঘরে স্ত্রী সবুরা বেগমকে পুড়িয়ে হত্যা করেন আব্দুল্লাহ। সেই হত্যাকাণ্ডের পর  নিহত সবুরা বেগমের বাবা সামছুর শেখ বাদী হয়ে জামাই আব্দুল্লাহর বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন। ২০১৯ সালে আসামির মৃত্যুদণ্ডের রায় দেন যশোর নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনাল-১।  হত্যাকাণ্ডের পর আসামি আব্দুল্লাহ পলাতক ছিলেন।

এরপর থেকেই পলাতক আসামি আব্দুল্লাহকে গ্রেফতারের চেষ্টা চালায় পুলিশ। শনিবার রাতে ঢাকার আশুলিয়া থানার কুটুরিয়া গ্রাম থেকে আব্দুল্লাহকে গ্রেফতার করা হয়।

বর্তমানে তাকে অভয়নগর থানা হেফাজতে রাখা হয়েছে।

রোববার দুপুরে অভয়নগর থানায় সংবাদ সম্মেলনে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে পুলিশ। আসামি মো. আব্দুল্লাহ ঐ উপজেলার বাঘুটিয়া ইউনিয়নের সিংগাড়ী গ্রামের মো. ইঞ্জিল সরদারের ছেলে।

সংবাদ সম্মেলনে যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (খ সার্কেল) মুকিত সরকার জানান, ২০০৮ সালের ১৫ জানুয়ারি রাতে নিজ ঘরে স্ত্রী সবুরা বেগমকে পুড়িয়ে হত্যা করেন আব্দুল্লাহ। পরদিন নিহত সবুরা বেগমের বাবা সামছুর শেখ বাদী হয়ে জামাই আব্দুল্লাহর বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন। সেই মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামীকে আজকে গ্রেপ্তারে করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক সার্কেল) বেলাল হোসাইন, অভয়নগর থানার ওসি একেএম শামীম হাসান, এসআই অভিজিৎ সিংহ রায়, এসআই শাহ আলম ও যশোর সাইবার ক্রাইমের এএসআই আব্দুল মতিন উপস্থিত ছিলেন।

news24bd.tv/আলী