পরকীয়ার জেরে বন্ধুর হাতে বন্ধু খুন!
পরকীয়ার জেরে বন্ধুর হাতে বন্ধু খুন!

সংগৃহীত ছবি

পরকীয়ার জেরে বন্ধুর হাতে বন্ধু খুন!

অনলাইন ডেস্ক

ফরিদ ও সালাউদ্দিন দুজন বন্ধু ছিলেন। সালাউদ্দিন মাঝে মধ্যে দ্বিতীয় স্ত্রীর সঙ্গে চট্টগ্রামে থাকতেন। এ সময় তার প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে ফরিদের অবৈধ সম্পর্ক গড়ে ওঠে বলে সন্দেহ করেন সালাউদ্দিন। পরে সালাউদ্দিন তার ছেলেকে নিয়ে ফরিদের ঘরে প্রবেশ করে।

সেখানে থাকা বটি দা দিয়ে ফরিদের গলায় ও কানে উপর্যুপরি আঘাত করে তাকে হত্যা করেন পিতা পুত্র।

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে এই ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত সালাউদ্দিন ও তার সহযোগী আবদুর রহমানকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাদের জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার মো. মিলন মাহমুদ বলেন, হত্যাকাণ্ডের সহযোগী আব্দুর রহমানকে গাজীপুর থেকে আটক করা হয়। পরবর্তীতে তার স্বীকারোক্তিতে মূলহোতা সালাউদ্দিনকে গ্রেফতার করা হয়।

পুলিশ সুপার আরও বলেন, ফরিদ ও সালাউদ্দিন দুজন বন্ধু ছিলেন। সালাউদ্দিন মাঝে মধ্যে দ্বিতীয় স্ত্রীর সঙ্গে চট্টগ্রামে থাকতেন। এ সময় তার প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে ফরিদের অবৈধ সম্পর্ক গড়ে ওঠে বলে সন্দেহ করেন সালাউদ্দিন। সহযোগীকে নিয়ে হত্যাকাণ্ডের পরিকল্পনা করেন তিনি।

পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ বলেন, পরিকল্পনা অনুযায়ী শনিবার সকাল ৭টায় সালাউদ্দিন তার ছেলে আরাফাতকে ফরিদের ঘরের ভাঙা সানশেডের ভেতর দিয়ে বিল্ডিংয়ের মধ্যে প্রবেশ করিয়ে দেন। পরে তার ছেলে ঘরের পেছনের দরজা খুলে দিলে ঘাতক সালাউদ্দিন ও তার সহযোগী ঘরে প্রবেশ করেন। ঘরে থাকা বটি দা দিয়ে ফরিদের গলায় ও কানে উপর্যুপরি আঘাত করে হত্যা করেন। নিহতের মানি ব্যাগে থাকা ১০ হাজার টাকা নিয়ে সেখান থেকে পালিয়ে যান তারা। গ্রেফতারের পর  দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাদের জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

news24bd.tv/আলী