ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনে হেরে বিজয়ীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ
ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনে হেরে বিজয়ীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

বিজয়ীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনে হেরে বিজয়ীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

এস এম রেজাউল করিম,  ঝালকাঠি

ঝালকাঠি সদর উপজেলার কীর্তিপাশা ইউনিয়নের বেশাইনখান শহীদ স্মৃতি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দু'পক্ষের মারামারিতে এক ব্যক্তি মারা গেছেন। মঙ্গলবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, নিহত মো: শাহ আলম হাওলাদার স্কুলটির ম্যনেজিং কমিটির নির্বাচনে গত সোমবার ভোটে অভিভাবক সদস্য পদে নির্বাচিত হন। তিনি একই ইউনিয়নের স্থান সিংহপুর গ্রামের প্রয়াত খালেক হাওলাদারের ছেলে।

নির্বাচনে জয়ের পর দিন মঙ্গলবার রাতে গ্রামের বাড়ির কাছে শাহ আলম ও ছেলে রাকিব একই এলাকার নির্বাচনী প্রতিপক্ষের সাথে মারামারিতে জড়িয়ে পড়েন।

পরে আহত অবস্থায় বাবা ও ছেলেকে জেলা সদর হাসপাতালে আনা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক শাহ আলম হাওলাদারকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের ছেলে রাকিব অভিযোগ করে বলেন, মামুন, নিলু ও হিরু কদিন আগে থেকেই তাদের ওপর মানুষিক চাপ সৃষ্টি করে। পরে নির্বাচনে হেরে পরদিন সন্ধ্যায় বাড়ির কাছে মহড়া দেয়।

রাতে মামুন, নিলু ও হিরুর নির্দেশে একই এলাকার ফয়সাল, রাসেল ও রানাসহ আরও কয়েকজন তারাবির নামাজ পড়তে যাওয়ার সময় রাকিবের ওপর হামালা চালায়। কাছাকাছি দোকান থেকে ছুটে এসে বাবা শাহ আলম ছেলেকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে হামলাকারীরা শাহ আলমকে মারধর করে। এতে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে শাহ আলম মারা যান।

স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক পরিতোষ কান্তি সুতর জানান, বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনে সর্বোচ্চ ভোটে শাহ আলম নির্বাচিত হয়েছিলেন। তার মৃত্যু নির্বাচনী সহিংসতা বলে মনে হচ্ছে।  

ঝালকাঠি সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাক্তার এস.কে বড়াল জানান, শাহ আলমকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছে। শরীরে আঘাতের চিহ্ন দেখা যায়নি। তবে মৃত্যুর কারণ ময়ণা তদন্তের পর জানা যাবে।

ঝালকাঠি সদর থানার ওসি মো: খলিলুর রহমান জানান, মরদেহের ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেপ্তার করতে অভিযান চলছে।

news24bd.tv/রিমু