অ্যাসাঞ্জকে যুক্তরাষ্ট্র পাঠাতে অনুমতি দিলো যুক্তরাজ্যের আদালত
অ্যাসাঞ্জকে যুক্তরাষ্ট্র পাঠাতে অনুমতি দিলো যুক্তরাজ্যের আদালত

সংগৃহীত ছবি

অ্যাসাঞ্জকে যুক্তরাষ্ট্র পাঠাতে অনুমতি দিলো যুক্তরাজ্যের আদালত

অনলাইন ডেস্ক

উইকিলিকস-এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে যুক্তরাষ্ট্রে পাঠানোর আনুষ্ঠানিক অনুমোদন দিয়েছে যুক্তরাজ্যের একটি আদালত। এতে বলা হয়েছে, আদালতের এই আদেশের পর তাকে যুক্তরাষ্ট্রে পাঠানোর সিদ্ধান্ত এখন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রীতি প্যাটেলের ওপর নির্ভর করছে। প্রত্যর্পণের বিষয়ে প্রীতি প্যাটেলের যেকোনও সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আগামী ১৪ দিনের মধ্যে হাইকোর্টে আপিল করতে পারবেন অ্যাসাঞ্জের আইনজীবীরা। এর আগে অ্যাসাঞ্জের বিরুদ্ধে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ এনেছিলো যুক্তরাষ্ট্র।

অভিযোগে বলা হয়েছিলো,  ইরাক ও আফগানিস্তান যুদ্ধ সম্পর্কে গোপন নথি ফাঁস করে দেয় অ্যাসাঞ্জ। বুধবার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান এখবর জানিয়েছে।

আদালতের এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিলের সুযোগ রয়েছে অ্যাসাঞ্জের। ওয়েস্টমিনিস্টার ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে শুনানিতে তিনি ভিডিও লিঙ্কে যুক্ত হন।

 অ্যাসাঞ্জের আইনজীবী এই ঘটনা ‘সংক্ষিপ্ত কিন্তু মামলার জন্য গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্ত’ হিসেবে উল্লেখ করেছেন।

অ্যাসাঞ্জের পক্ষে আইনজীবী মার্ক সামার্স কিউসি বলেছেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে বিষয়টি পাঠানো ছাড়া তার কাছে আর কোনও বিকল্প নেই। নতুন প্রমাণ হাজির করার সুযোগ অ্যাসাঞ্জের আইনজীবীদের ছিল না। কিন্তু নতুন অগ্রগতি আছে।

ভিডিও লিঙ্কে বেলমার্শ কারাগার যুক্ত হওয়া অ্যাসাঞ্জের পরণে ছিল একটি জ্যাকেট ও টাই। গত মাসে স্টেলা মরিসকে কারাগারেই বিয়ে করেন তিনি। শুনানিতে শুধু নিজের নাম ও জন্মতারিখ নিশ্চিত করতে কথা বলেন তিনি।  শুনানির সময় ওয়েস্টমিনিস্টার ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের পাবলিক গ্যালারিতে অনেক মানুষ জড়ো হয়েছিলেন অ্যাসাঞ্জের সমর্থনে। এদের মধ্যে ছিলেন স্টেলা মরিস ও লেবার পার্টির সাবেক নেতা জেরেমি করবিন।