এবার বাজে আম্পায়ারিংয়ের অভিযোগে রকিবুলের হেলমেটে লাথি
এবার বাজে আম্পায়ারিংয়ের অভিযোগে রকিবুলের হেলমেটে লাথি

সংগৃহীত ছবি

এবার বাজে আম্পায়ারিংয়ের অভিযোগে রকিবুলের হেলমেটে লাথি

অনলাইন ডেস্ক

বাজে আম্পায়ারিংয়ের অভিযোগে স্ট্যাম্পে লাথি মেরে বেশ আলোড়ন তৈরি করেছিল সাকিব আল হাসান। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের গত আসরে এই ঘটনা ঘটেছিল।

চলতি আসরে কিছুদিন আগে মিরপুরের উইকেট নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে ড্রেসিংরুমের কাচের দরজায় লাথি দিয়ে আলোচনার জন্ম দেন মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।  

এবার আম্পায়ারের বাজে সিদ্ধান্তে মেজাজ হারিয়ে হেলমেটে লাথি দিয়ে আলোচায় ঝড় তুলে দিয়েছেন জাতীয় দলের সাবেক তারকা ক্রিকেটার রকিবুল হাসান।

আজ বৃহস্পতিবার বিকেএসপিতে অনুষ্ঠিত ম্যাচে ড্রেসিংরুমে ফেরার পথে এ কাণ্ড ঘটান অভিজ্ঞ ক্রিকেটার রকিবুল।  

ঢাকা লিগের সুপার লিগ পর্বের হাইভোল্টেজ ম্যাচে আজ মুখোমুখি হয় লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ আর প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব। শিরোপার দৌড়ে থাকা দুই দলের জন্যই ম্যাচটি ছিল খুবই গুরুত্বপূর্ণ।  

এ ম্যাচে আগে ব্যাট করে স্কোর বোর্ডে ১৫২ রান জমা করে প্রাইম ব্যাংক। মামুলি স্কোর তাড়া করতে নেমে শুরুতেই হোঁচট খায় মাশরাফি বিন মুর্তজার রূপগঞ্জ।

রান তাড়ায় রূপগঞ্জ ইনিংসের ষষ্ঠ ওভারে ব্যাটিং করছিলেন সাব্বির রহমান ও রকিবুল। প্রাইম ব্যাংকের বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল ইসলামের করা ওভারের দ্বিতীয় বলটিতে খেলতে গিয়ে টাইমিংয়ে মিস করেন সাব্বির। তবে সুযোগ পেয়েও বলটি তালুবন্দি করতে পারেননি ফিল্ডার মুমিনুল হক।

মিস ফিল্ডিংয়ের সুযোগে দৌড়ে রান নেওয়ার চেষ্টা করেন সাব্বির-রকিবুল জুটি। এতে রান আউটের সুযোগ তৈরি হয়।

স্ট্রাইক প্রান্তে মুমিনুলের থ্রো থেকে যখন প্রাইম ব্যাংকের উইকেটকিপার মোহাম্মদ মিঠুন স্টাম্প ভেঙে দেন, তখন রকিবুল ক্রিজের বাইরে থাকায় তাকে রান আউট ঘোষণা করেন আম্পায়ার। আম্পায়ারের এমন সিদ্ধান্ত পছন্দ হয়নি রকিবুলের। এরপরই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ করেন। রকিবুলের দাবি, মিঠুন স্টাম্প ভাঙার আগেই গ্লাভস ফসকে বল মাটিতে পড়ে গেছে।  

পরে এ নিয়ে দুই ফিল্ড আম্পায়ার সৈয়দ মুজাহিদুজ্জামান ও শাফিন শরিফের সঙ্গে বাগবিতণ্ডায় জড়ান রকিবুল। সঙ্গে যোগ দেন সাব্বির। তবে আম্পায়াররা নিজেদের সিদ্ধান্তে ছিলেন অটল। শেষ পর্যন্ত ৬ বল খেলে ৩ রান করা রকিবুলকে হতাশ হয়েই মাঠ ছাড়তে হয়।  

ড্রেসিংরুমে ফেরার পথে নিজের হেলমেট খুলে লাথি মেরে ফেলে দেন রকিবুল।

news24bd.tv/কামরুল