নিউমার্কেটে ক্রেতাদের সাথে যা করা যাবে না 
নিউমার্কেটে ক্রেতাদের সাথে যা করা যাবে না 

সংগৃহীত ছবি

নিউমার্কেটে ক্রেতাদের সাথে যা করা যাবে না 

অনলাইন ডেস্ক

চিরচেনা রূপে ফিরছে রাজধানীর নিউমার্কেট। শিক্ষার্থীদের সঙ্গে সংঘর্ষের পর ক্রেতাদের আস্থা ধরে রাখতে তৎপর এখন নিউমার্কেট ও চন্দ্রিমা মার্কেটের ব্যবসায়ীরা। এ জন্য চলছে প্রচারণা বা মাইকিং। ব্যবসায়ী সমিতির পক্ষ থেকে বারবার বিক্রেতাদের প্রতি আহ্বান জানানো হচ্ছে, কোনোভাবেই যেন বিক্রেতাদের আচরণে ক্রেতারা বিরক্ত না হন।

বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বৃহস্পতিবার (২১ এপ্রিল) সকাল থেকে খুলেছে নিউমার্কেট ও চন্দ্রিমা সুপারমার্কেট। ক্রেতা-বিক্রেতা উভয়ে ভালো আচরণ করলে এবং ভুল তথ্যে প্রভাব খাটানো থেকে বিরত থাকলে এমন ঘটনা আর ঘটবে না বলে মনে করেন ব্যবসায়ীরা। তাই ব্যবসায়ী সমিতির পক্ষ থেকে কেন্দ্রীয় শব্দযন্ত্রের মাধ্যমে বারবার বিক্রেতাদের প্রতি ‘শোভন’ আচরণ করার আহ্বান জানানো হচ্ছে।

ঘোষণায় বলা হচ্ছে, ‘কোনো কর্মচারী বা ব্যবসায়ী ক্রেতা সাধারণের সঙ্গে অশোভন আচরণ করতে পারবেন না। ক্রেতাদের কেনাকাটা করতে বাধ্য করা যাবে না। হাত ধরে টানাটানি, ডাকাডাকি বা কাঁধে হাত রেখে ক্রেতাদের দোকানে নেওয়ার চেষ্টা করা যাবে না। ক্রেতারা যেন বিক্রেতাদের আচরণে বিরক্ত বোধ না করেন, সে বিষয়ে সজাগ থাকতে হবে।

এছাড়া, মার্কেট কর্তৃপক্ষের ঘোষণায় বলা হয়, কারও বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ পেলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অভিযোগ সত্য প্রমাণ হলে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে মার্কেট বা কাজ থেকে বহিষ্কার এবং আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কাছেও সোপর্দ করতে পিছপা হবে না ব্যবসায়ী সমিতি।

এ বিষয়ে ঢাকা নিউমার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি দেওয়ান আমিনুল ইসলাম বলেন, ক্রেতাদের তরফ থেকে কোনো অভিযোগ এলে সমিতি তা খতিয়ে দেখবে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে কর্মচারী ও এমনকি দোকানমালিকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

চন্দ্রিমা সুপারমার্কেট মালিক সমিতির সভাপতি মনজুর আহমেদ বলেন, আমরা ক্রেতাদের বিশ্বস্ততা অর্জনের চেষ্টা করে যাচ্ছি। শিগগিরই মার্কেটের সব বিক্রয়কর্মীর পরিচয়পত্র দিয়ে দেওয়া হবে, যাতে কারও বিরুদ্ধে অভিযোগ পেলে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া যায়।

প্রসঙ্গত, সোমবার (১৮ এপ্রিল) দিবাগত রাতে দুই দোকানের কর্মচারীদের মধ্যে বিবাদ থেকে সূত্রপাত হয় ব্যবসায়ী ও ঢাকা কলেজ শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষ। মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) রণক্ষেত্রে পরিণত হয় নিউমার্কেট এলাকা। এ সংঘর্ষে নাহিদ ও মোরসালিন নামে দুইজনের ‍মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া উভয়পক্ষের অর্ধশতাধিক আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তাদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা গুরুতর।
news24bd.tv/আলী

সম্পর্কিত খবর