ঢাকা-বরিশাল রুটে শুরু হয়েছে ঈদের প্রস্তুতি

ঢাকা-বরিশাল রুটে শুরু হয়েছে ঈদের প্রস্তুতি

সাইফুর রহমান মিরণ

দুই বছর করোনার বিধিনিষেধ কাটিয়ে রাজধানীবাসীর একটা বড়ো অংশ এ বছর ঈদ করতে দক্ষিণমুখী হবেন। আর বাড়তি চাপ বিবেচনায় নিয়ে এবার ঢাকা বরিশাল রুটে লঞ্চ চলাচলের প্রস্তুতি নিচ্ছে বিআইডব্লিউটিএ।  দুর্ঘটনা এড়াতে ঈদের আগে এবং পরে ১০ দিন বালূবাহী বাল্কহেড চলাচল নিষিদ্ধ করা হয়েছে। যাত্রী নিরাপত্তায় কাজ করবে ভ্রাম্যমান আদালতের টিম।

অতিরিক্ত যাত্রীর চাপ সামলাতে লঞ্চের সংখ্যা বাড়ানোর কথা বলেছেন মালিকরা।  

দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের ঈদ যাত্রার প্রধান মাধ্যম লঞ্চ। সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে ঈদে প্রায় ১০ গুণ বেশি যাত্রীর চাপ থাকে। এবার এর মাত্রা আরো বাড়তে পারে এমন বিবেচনায় এরই মধ্যে ঢাকা-বরিশাল রুটে শুরু হয়েছে ঈদের প্রস্তুতি।  যাত্রীদের নিরাপদে ও নির্বিঘ্নে পৌঁছে দিতে নেয়া হচ্ছে নানা সতর্কতামূলক ব্যবস্থা। বৈশাখী ঝড়ের আভাস থাকায় নৌযানগুলোতে বাড়ানো হচ্ছে জীবনরক্ষাকারী সরঞ্জাম। বাড়ানো হচ্ছে লঞ্চের সংখ্যা।

এদিকে বিআইডব্লিউটিএর কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ঈদে এই রুটে ২৫ থেকে ৩০টি নৌযান চলবে। বন্ধ রাখা হবে অন্যান্য সময়ের রোটেশন প্রথা। বাড়তি যাত্রী বহন বন্ধে কাজ করবে বেশ কিছু ভ্রাম্যমান টিম।  

জেলা প্রশাসক বলেছেন, ঈদের বিশেষ পরিস্থিতি মোকাবেলায় এরই মধ্যে একটি সমন্বয় টিম গঠন করা হয়েছে। লঞ্চের কেবিনের টিকিট কালো বাজারী রোধে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।  এবার ঈদে ঢাকা-বরিশাল নৌ পথে ২৬টি বিলাসবহুল লঞ্চ চলাচল করবে। এছাড়া থাকবে সরকারি ২ টি স্টিমার। ২৭ এপ্রিল থেকে ডাবল ট্রিপ দেবে লঞ্চগুলো।

news24bd.tv/কামরুল