'মারিওপোলে এখনও ইউক্রেনীয় বাহিনী লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে'
'মারিওপোলে এখনও ইউক্রেনীয় বাহিনী লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে'

ফাইল ছবি

জেনেলেস্কির দাবি

'মারিওপোলে এখনও ইউক্রেনীয় বাহিনী লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে'

চন্দ্রানী চন্দ্রা

টানা প্রায় দুই মাস ধরে ইউক্রেনে সামরিক অভিযান চালাচ্ছে রাশিয়া। মারিওপোলে এখনও ইউক্রেনীয় বাহিনী লড়াই চালিয়ে যাওয়ার দাবি করেছে জেনেলেস্কি। রুশ সামরিক আগ্রাসনে ভবন ও অবকাঠামোগত ক্ষতি ৬ হাজার কোটি মার্কিন ডলারে পৌঁছেছে বলে জানিয়েছেন বিশ্বব্যাংক। প্রথমবারের মতো ইউক্রেন যুদ্ধ আগামী বছরের শেষ নাগাদ পযন্ত চলতে পারে ইঙ্গিত দিলো ভারতে সফররত বরিস জনসন।

পূর্ব ও দক্ষিণ ইউক্রেন নিয়ন্ত্রণে রুশ এবং ইউক্রেনীয় যোদ্ধাদের মধ্যে চলছে প্রবল লড়াই। রাশিয়ার সামরিক বাহিনীর এক ডেপুটি কমান্ডার বলেছেন, সামরিক অভিযানের দ্বিতীয় পর্যায়ে দোনবাস এবং ইউক্রেনের দক্ষিণাঞ্চল পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার পরিকল্পনা করছে রাশিয়া।  

ইউক্রেনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, লুহানস্কের ৮০ শতাংশ জায়গায় নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে রুশ বাহিনী। অঞ্চলটিতে রুশ বাহিনীর সঙ্গে লড়ছে মস্কো সমর্থিত সশস্ত্র বিচ্ছিন্নতাবাদী যোদ্ধারা।

এদিকে, বন্দরনগরী মারিওপোলে চলছে তুমুল লড়াই। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কেন্দ্র এখন শহরটি।  

ইউক্রেন যুদ্ধ আগামী বছরের শেষ নাগাদ পর্যন্ত চলতে পারে বলে ভবিষ্যদ্বাণী করেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। ভারত সফররত জনসন দিল্লিতে বলেন, এটি একটি বাস্তবিক সম্ভাবনা।

তিনি বলেন, পুতিনের বিশাল সেনাবাহিনী রয়েছে। আগামী মাসে বিশাল পদাতিক বাহিনী মাঠে নামাতে পারেন। তার কাছে এখন একমাত্র বিকল্প হল, ইউক্রেনীয়দের পিষে ফেলতে আর্টিলারি দ্বারা চালিত তার ভয়ঙ্কর, নাকাল পরিস্থিতি তৈরী করা।

তবে যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রীর দাবী পুতিন আগামী কয়েক মাসে যত সামরিক শ্রেষ্ঠত্বই দেখাক না কেন বা যত নিষ্ঠুর হামলাই করুক না কেন, ইউক্রেনের জনগণের মনোবল ভাঙতে পারবেন না।

এদিকে কিয়েভে যুক্তরাজ্যের দূতাবাস আগামী মাসে পুণরায় খোলা হবে বলে জানিয়েছে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী।  

news24bd.tv/রিমু