ঈদযাত্রায় সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণহানি কমাতে বাইক নিয়ন্ত্রণের দাবি
ঈদযাত্রায় সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণহানি কমাতে বাইক নিয়ন্ত্রণের দাবি

সংগৃহীত ছবি

ঈদযাত্রায় সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণহানি কমাতে বাইক নিয়ন্ত্রণের দাবি

অনলাইন ডেস্ক

ঈদযাত্রায় সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণহানি কমাতে মহাসড়কে মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ যাত্রীকল্যাণ সমিতি। তারা মনে করে, এটা করতে পারলে ঈদযাত্রায় সড়কে মৃত্যু কমে আসবে। বাইক নিয়ন্ত্রণের পাশাপাশি ঈদের সময় রিকশা, অটোরিকশা, ইজিবাইকের মতো ধীরগতির যান চলাচল বন্ধেরও দাবি জানিয়েছে সংগঠনটি।

আজ রোববার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে সংগঠনের মহাসচিব মোজাম্মেল হক চৌধুরী এসব দাবি জানান।

সড়ক দুর্ঘটনায় যত মৃত্যু হয়, তার মধ্যে এখন সবচেয়ে বেশি বাইক আরোহী। ঈদে বাড়ি ফিরতে ভোগান্তির কারণে বাইকে করে দূরপাল্লায় যাত্রার প্রবণতা বাড়ছে।

তবে এই বাহনগুলো সাধারণত দূরের যাত্রায় ব্যবহার করা খুবই বিপজ্জনক এ কারণে যে এর নিরাপত্তাব্যবস্থা দুর্বল। দীর্ঘ যাত্রার ক্লান্তিতে চালক দুর্ঘটনা ঘটাতে পারে এবং বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই মহাসড়কে বাইক দুর্ঘটনা হয় প্রাণঘাতী। বাংলাদেশ যাত্রীকল্যাণ সমিতির তথ্য অনুযায়ী, গত ঈদে ৩১৮টি সড়ক দুর্ঘটনায় ৩২৩ জন নিহত ও ৬২২ জন আহত হয়েছিলেন। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ১৩৯ জন মারা যান বাইক আরোহী। আহত হন আরও ১৯৯ জন।

ওই বছর সড়কে মৃত্যুর ৪৩ দশমিক ০৩ শতাংশ এবং আহতের ৩১ দশমিক ৯৯ শতাংশ ছিল বাইক আরোহী।

গত দুই বছর করোনা পরিস্থিতিতে বিধিনিষেধের কারণে ঘরমুখো মানুষের যাত্রা ছিল তুলনামূলক কম। তবে এবার কোনো বিধিনিষেধ না থাকায় বাইকে করে যাত্রা তিন গুণ বেশি থাকবে বলেও ধারণা করছে যাত্রীকল্যাণ সমিতি। মোজাম্মেল বলেন, ‘এতে দুর্ঘটনার ঝুঁকিও তিন গুণ বেড়ে যেতে পারে। ’

সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনায় মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ করা গেলে এবারের ঈদে ৫০ শতাংশ দুর্ঘটনা কমানো সম্ভব বলেও মনে করেন তিনি।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত     

;