সাইকেলে ঘুরে সবজি বিক্রি, কে এই তৃণমূল উপপ্রধান? 
সাইকেলে ঘুরে সবজি বিক্রি, কে এই তৃণমূল উপপ্রধান? 

সংগৃহীত ছবি

সাইকেলে ঘুরে সবজি বিক্রি, কে এই তৃণমূল উপপ্রধান? 

অনলাইন ডেস্ক

ভারতের তৃণমূলের উপ-প্রধান বিশ্বনাথ সিং। শুনতে অবিশ্বাস্য মনে হলেও উপপ্রধান হওয়ার পরেও ৪ বছর ধরে সবজি ফেরি করে আসছেন তিনি। গ্রাম থেকে গ্রামে সাইকেলে ঘুরে শাক সবজি বিক্রি করেন। খবর ভারতীয় এক সংবাদমাধ্যম আজকাল ইন এর।

তাকে নিয়ে অনেকেই ঠাট্টা করেন। কিন্তু তিনি তার পেশা ছাড়তে নারাজ। দল বলছে, ‘বিশ্বনাথের মতো সৎ ব্যক্তি দলের সম্পদ। ’

এ বিষয়ে বিশ্বনাথ বলেন, ‘‌আমরা স্বামী–স্ত্রী দু’‌জনেই পেশায় দিনমজুর। দীর্ঘ ২০ বছর ধরে শাক-সবজি ফেরি করে আসছি। কখনও ১৫০ থেকে ২০০ টাকা পর্যন্ত লাভ করি। স্ত্রী দিনমজুরি করে ২১০ টাকা রোজগার করেন। স্ত্রীর রোজ কাজ থাকে না। এভাবেই চারজনের সংসার চলছে। ’‌ 

২০১৮ সালের পঞ্চায়েত নির্বাচনে জয় লাভ করার পরই উপ-প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পান তিনি। তার পরেও তিনি তার পেশা ছাড়েননি। তার স্ত্রী মানবীদেবী পেশায় দিনমজুর। তাঁদের দুই পুত্র যথাক্রমে রানা ও সায়ন। রানা প্রতিবন্ধকতার কারণে বেশি দূর পড়াশোনা করতে পারেনি। তবে তার ভাই সায়ন এখন নবম শ্রেণিতে পড়ছে। বিশ্বনাথ মাটির বাড়িতে থাকেন। তিনি উচ্চমাধ্যমিক পর্যন্ত পড়াশোনা করেছেন। এলাকায় তিনি খুবই জনপ্রিয়।  

তৃণমূলের আউশগ্রাম-১ নম্বর ব্লক সভাপতি প্রসেনজিৎ চক্রবর্তী তাঁকে ভোটে দাঁড়াতে বলেন। প্রথমে রাজি না হলেও শেষে ভোটে দাঁড়িয়ে জয়লাভ করেন। উপ-প্রধানের দায়িত্ব গ্রহণ করেন। কিন্তু তিনি তার পেশা বদল করেননি। আপনি একজন জনপ্রতিনিধি তবুও ফেরি করেছেন? এই প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘‌এই পেশা কোনও ভাবেই ছাড়ব না। উপ-প্রধানের পদ থাকতেও পারে, আবার নাও থাকতে পারে। কিন্তু তাঁর নিজের পেশা সারা জীবন থেকে যাবে। তাই নিজের কর্ম নিজেকেই করতে হবে। ’‌

news24bd.tv/রিমু