কসাইয়ের কোপে ক্রেতা জখম!
কসাইয়ের কোপে ক্রেতা জখম!

সংগৃহীত ছবি

কসাইয়ের কোপে ক্রেতা জখম!

অনলাইন ডেস্ক

বাগেরহাটে গরুর মাংসের দাম দোকানে প্রদর্শিত মূল্য তালিকার অতিরিক্ত নেওয়ার কারণ জানতে চাওয়া নিয়ে বিতণ্ডায় এক ক্রেতাকে কুপিয়ে জখম করেছে কসাই। এসময় তার সাথে থাকা আরও দুজনকে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ উঠেছে কসাইদের বিরুদ্ধে। সোমবার বিকেলে বাগেরহাট শহরের প্রধান বাজার সংলগ্ন শহর রক্ষা বাঁধে এমাদুলের গরুর মাংসের দোকানে এই ঘটনা ঘটে। কসাইদের হামলায় গুরুত্বর আহত লিটুকে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

হামলার সাথে জড়িত ইব্রাহীম মোল্লা (২২) নামের এক কসাইকে আটক করেছে বাগেরহাট থানা পুলিশ। আটক কসাই ইব্রাহিম মোল্লা বাগেরহাট নাগেরবাজার এলাকার আইয়ুব আলী মোল্লার ছেলে।

কসাইদের হামলায় আহতরা হলেন, বাগেরহাট শহরের হাড়িখালী এলাকার মো. শামীম হাসানের ছেলে মো. লিটু (২২), একই এলাকার মো. মানিক মিয়ার ছেলে আব্দুর রাজ্জাক (৩৩) এবং মাঝিডাঙ্গা এলাকার আশ্বাব আলী হাওলাদারের ছেলে রহমত হাওলাদার (২৭)। আহত তিনজনই পেশায় অ্যাম্বুলেন্স চালক। ঈদ উপলক্ষে গরুর মাংস কিনতে তারা বাজারে গিয়েছিলেন।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মো. লিটু বলেন, ’দোকানে প্রদর্শিত মূল্য তালিকায় গরুর মাংসের কেজি লেখা ছিল ৬৫০ টাকা। আমরা কিনতে চাইলে সাতশ টাকা কেজি চাইল চর্বিসহ। তালিকায় লেখা মূল্যের অতিরিক্ত নিলে মূল্য তালিকার কি প্রয়োজন দোকানির কাছে এটা জানতে চাই আমরা। তখন তারা আমাদের সাথে খুবই বাজে ব্যবহার করে। এক পর্যায়ে আমাদেরকে মারধর শুরু করে কসাইরা। ইব্রাহীম, এমাদুল, আরিফুলসহ ৫-৬জন কসাই আমাদেরকে চলা দিয়ে পিটায়। একজন আমার মাথার উপর ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপ দেয়। আমার সাথে থাকা রহমত ও ও আব্দুর রাজ্জাককেও মারধর করেছে তারা। আমরা এই হামলার বিচার চাই। ’

বাগেরহাট মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কেএম আজিজুল ইসলাম বলেন, ’হামলার ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে ইব্রাহীম নামে এক কসাইকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। হামলার ঘটনায় জড়িত অন্য কসাইদের আটকের চেষ্টা করছে পুলিশ। ’

news24bd.tv/desk