চারজনের হাতে চারদিন ধরে ধর্ষণ, থানায় গিয়ে ফের ধর্ষণের শিকার কিশোরী
চারজনের হাতে চারদিন ধরে ধর্ষণ, থানায় গিয়ে ফের ধর্ষণের শিকার কিশোরী

প্রতীকী ছবি

চারজনের হাতে চারদিন ধরে ধর্ষণ, থানায় গিয়ে ফের ধর্ষণের শিকার কিশোরী

অনলাইন ডেস্ক

ধর্ষণের অভিযোগ করতে থানায় গিয়েছিল ১৩ বছরের কিশোরী। তারপর থানায় তাকে আবারো ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা তিলকধারী সরোজের বিরুদ্ধে অভিযোগের তীর।  

কিশোরীর আত্মীয়ের সামনেই চরম বেহায়াপনা করা হয়েছে।

অভিযুক্ত তিলকধারী সরোজ ঘটনার পর থেকেই পলাতক রয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের ললিতপুরে।
পুলিশ বলছে, গত ২২ এপ্রিল গ্রামেরই চারজন ওই কিশোরীকে প্রলোভন দেখিয়ে ভোপালে নিয়ে যায়। অভিযোগ রয়েছে, সেখানে আটকে রেখে চার দিন ধরে কিশোরীর সঙ্গে অসভ্যতা করে ওই চারজন। তার পর দু’দিন আগে তাকে গ্রামে ফের ফিরিয়ে দিয়ে যায় অভিযুক্তরা।  

এর পর ওই কিশোরী ললিতপুর থানায় চার জনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করতে যায়। থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তিলকধারী তখন কিশোরীকে তার চাচির হাতে তুলে দেন। সেই সঙ্গেই জানান, পরের দিন গোপন জবানবন্দি দিতে থানায় আসতে হবে।  

পুলিশ কর্মকর্তার কথা মতো চাচিকে নিয়ে থানায় গোপন জবানবন্দি দিতে যায় কিশোরী। অভিযোগ উঠেছে, কিশোরীকে একটি ঘরে নিয়ে যান ওই পুলিশ কর্মকর্তা। এরপর কিশোরীর চাচির সামনেই তার সঙ্গে চরম অসভ্যতা করেন তিনি।

পুলিশ কর্মকর্তা এবং কিশোরীর চাচির বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, অভিযুক্ত পুলিশ কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে। তার খোঁজে তল্লাশি চালানোর জন্য একটি বিশেষ দলও গঠন করা হয়েছে।  

পুলিশের দাবি, অল্পদিনের মধ্যেই তারা অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করতে পারবে।
সূত্র: এনডিটিভি।
news24bd.tv তৌহিদ

;