সেই টিটিইর বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহার
সেই টিটিইর বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহার

ফাইল ছবি

সেই টিটিইর বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহার

শাহনাজ ইয়াসমিন

রেলমন্ত্রীর আত্মীয় পরিচয়ে বিনা টিকিটে ট্রেনে ভ্রমণ করার কারণে ট্রেনের ৩ যাত্রীর সঙ্গে ব্যবহার ও জরিমানা করার অভিযোগে ঈশ্বরদীর ভ্রাম্যমান টিকিট পরীক্ষক (টিটিই) শফিকুল ইসলামকে সাময়িক বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহার করা হয়েছে।

আজ রোববার এ কথা জানিয়েছেন রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন।

রেলমন্ত্রী বলেন, বিনা টিকিটে ট্রেনে ভ্রমণকারী তারা আমার স্ত্রীর আত্মীয় এটা সত্য কিন্তু এটা আমি আগে জানতাম না, পরে জেনেছি।

মন্ত্রী আরও বলেন, আমার স্ত্রীর তার আত্মীয়ের সাথে খারাপ ব্যবহার হয়েছে এ ব্যাপারে অভিযোগ করেছে, কিন্তু বরখাস্ত করার কথা তিনি বলেননি।

আমার স্ত্রী আমাকে না জানিয়ে যেটা করেছে সেটা ঠিক করেননি। এতে আমি বিব্রত। এ জন্যই টিটিইর বরখাস্ত বাতিল করা হলো। টিটিইর প্রমোশনও হতে পারে বলে জানান তিনি।

ট্রেনে ভ্রমণকারীদের বয়স ১৮ থেকে ১৯ বছর। শনিবার সকালে রেলমন্ত্রী জানান, বিনা টিকিটে ট্রেনে ভ্রমণ করা যাত্রীরা তার আত্মীয় নয়। ওদের সঙ্গে তার কোনো সম্পর্ক নেই। মন্ত্রীর নাম ভাঙিয়ে কেউ হয়তো সুবিধা নেওয়ার চেষ্টা করেছে। ঘটনার সঙ্গে তার কোনো সম্পর্ক নেই।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার রাতে (৫ মে) পাবনার ঈশ্বরদী রেল জংশন থেকে টিকিট ছাড়া ট্রেনে ওঠেন ‘রেলপথমন্ত্রীর আত্মীয়’ পরিচয়দানকারী ৩ যাত্রী। টিকিট না কাটলেও তারা রেলের এসি কেবিনের সিট দখল করেন। এতে রেলের ভ্রাম্যমাণ টিকিট পরীক্ষক (টিটিই) তাদের জরিমানা করেন। পরে ওই ৩ যাত্রী তাদের সঙ্গে অসদাচরণ করা হয় বলে রেলের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ করেন। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে টিটিই শফিকুল ইসলামকে বৃহস্পতিবার রাতেই সাময়িক বরখাস্ত করে রেল কর্তৃপক্ষ। সাময়িক বরখাস্তাদেশ শুক্রবার (৬ মে) থেকে কার্যকর হয়েছে।

news24bd.tv/রিমু

;