ক্ষুধার্ত ও ক্লান্ত তরুণীর সর্বনাশ করল তিন যুবক
ক্ষুধার্ত ও ক্লান্ত তরুণীর সর্বনাশ করল তিন যুবক

সংগৃহীত ছবি

ক্ষুধার্ত ও ক্লান্ত তরুণীর সর্বনাশ করল তিন যুবক

অনলাইন ডেস্ক

কুমিল্লা থেকে অভিমানে চট্রগ্রামে আসেন এক তরুণী। শনিবার সকালে তিনি কুমিল্লায় ফেরার চেষ্টা করেন। কিন্তু টাকা না থাকায় ফিরতে পারেননি। পরে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে আকবরশাহ থানার শাপলা আবাসিক এলাকার মীর আউলিয়া মাজারের উত্তর পাশে একটি ঘরের সামনে ক্ষুধার্ত ও ক্লান্ত অবস্থায় বসে ছিলেন তিনি।

পরে তাকে কাজ দেওয়ার কথা বলে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করেন নয়ন, আরিফ ও আব্দুল লতিফ। সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে তিনজনকে গ্রেফতার করেছে চট্টগ্রাম নগরীর আকবরশাহ থানা পুলিশ।

রোববার দুপুরে এ তথ্য নিশ্চিত করেন থানার আকবরশাহ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জহির হোসেন। এর আগে, শনিবার রাতভর নগরীর বিভিন্ন এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতাররা হলেন- আরিফুল ইসলাম আরিফ, নয়ন ও আব্দুল লতিফ।

পুলিশ জানায়, স্বজনদের সঙ্গে অভিমান করে কয়েকদিন আগে কুমিল্লা থেকে চট্টগ্রামে চলে আসেন ওই তরুণী। শনিবার সকালে তিনি কুমিল্লায় ফেরার চেষ্টা করেন। কিন্তু টাকা না থাকায় ফিরতে পারেননি। পরে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে আকবরশাহ থানার শাপলা আবাসিক এলাকার মীর আউলিয়া মাজারের উত্তর পাশে একটি ঘরের সামনে ক্ষুধার্ত ও ক্লান্ত অবস্থায় বসে ছিলেন তিনি। ওই সময় কাজ দেওয়ার কথা বলে তাকে একটি বাসায় নিয়ে যান নয়ন। সেখানে নয়ন, আরিফ ও আব্দুল লতিফ মিলে তাকে ধর্ষণ করেন। এরপর অচেতন অবস্থায় ওই তরুণীকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি করে পুলিশ। সেখানে চিকিৎসার পর জ্ঞান ফিরলে পুলিশের কাছে পুরো ঘটনার বর্ণনা দেন তিনি।

ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) জহির হোসেন বলেন, ভুক্তভোগী তরুণীর করা মামলায় জঙ্গল লতিফপুর পাহাড়ি এলাকা থেকে আরিফকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তার দেওয়া তথ্যে পাকা রাস্তার মাথা এলাকা থেকে নয়নকে ও বন্দর থানার নিমতলা এলাকা থেকে আব্দুল লতিফকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারের পর ধর্ষণের ঘটনা স্বীকার করেন তারা। রোববার তাদের আদালতে পাঠানো হয়েছে।

news24bd.tv/আলী

সম্পর্কিত খবর

;