ডাকঘরকে সম্পূর্ণ ডিজিটাল করতে হবে: মোস্তাফা জব্বার
ডাকঘরকে সম্পূর্ণ ডিজিটাল করতে হবে: মোস্তাফা জব্বার

সংগৃহীত ছবি

ডাকঘরকে সম্পূর্ণ ডিজিটাল করতে হবে: মোস্তাফা জব্বার

অনলাইন ডেস্ক

ডিজিটাল বাণিজ্য যত বাড়বে ডাকঘরের চাহিদা ও গুরুত্ব তত বাড়বে। এজন্য ডাকঘরকে সম্পূর্ণভাবে ডিজিটাল ডাকঘরে রূপান্তরের বিকল্প নেই বলে জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

সোমবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে ডাকভবন মিলনায়তনের এক বৈঠকে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন তিনি। ডাক অধিদফতর ও এটুআই প্রোগ্রামের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত এ বৈঠকে ডিজিটাল ডাকঘরবিষয়ক গৃহীত কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়ন সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়।

মন্ত্রী বলেন, ডাকঘরকে ডিজিটাল যুগের উপযোগী করে গড়ে তুলতে প্রণীত ডিজিটাল সার্ভিস ডিজাইন ল্যাব (ডিএসডিএল) প্রস্তাব ডিজিটাল ডাকঘর প্রতিষ্ঠায় একটি ঐতিহাসিক মাইলফলক। এর ফলে উৎপাদনমুখী কর্মকাণ্ডের ডিজিটালাইজেশনের ভীত তৈরি হয়েছে। ’

ডাক বিভাগের কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞদের নিয়ে তৈরি করা এই মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নের মাধ্যমে শিগগিরই ডাকসেবা কাঙ্ক্ষিত মানে উন্নীত হবে বলে বৈঠকে দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করেন মন্ত্রী।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী ডাকঘরের মাধ্যমে জনগণকে সেবা দেওয়ার বিশাল সুযোগ কাজে লাগানোর দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করে বলেন, ডাকঘরের বিস্তীর্ণ নেটওয়ার্ক, বিশাল অবকাঠামো এবং জনবল ব্যবহার করে প্রত্যন্ত এলাকাসহ দেশের প্রতিটি মানুষের দোরগোড়ায় সেবা পৌঁছে দেওয়ার ক্ষমতা ডাক বিভাগের আছে।   

বঙ্গবন্ধু ডিজিটাল বাংলাদেশের বীজ বপন করে গেছেন উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৯৬ সাল থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত বঙ্গবন্ধুর বপন করা বীজটি চারা গাছে রুপা্ন্তর করেছেন। ২০০৯ সাল থেকে গত সাড়ে তের বছরে তা মহিরূহে রূপ নিয়েছে।
news24bd.tv/আলী