মুরগির মাংস খাওয়ানোর কথা বলে ডেকে দেবরকে হত্যা
মুরগির মাংস খাওয়ানোর কথা বলে ডেকে দেবরকে হত্যা

প্রতীকী ছবি

মুরগির মাংস খাওয়ানোর কথা বলে ডেকে দেবরকে হত্যা

অনলাইন ডেস্ক

জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলায় মাংস খাওয়ানোর কথা বলে ডেকে নিয়ে শিশুকে গলা টিপে হত্যা করার কথা স্বীকার করেছেন তারই ভাবি। শিশুটির নাম লাবিব আব্দুল্লাহ (৪)। ভাবি রীমা আক্তারকে মঙ্গলবার (১০ মে) দুপুরে গ্রেপ্তার করা হয়।

রীমা ওই গ্রামের জহুর আলীর ছেলে মেফতাউল ইসলামের স্ত্রী।

আর শিশু লাবিব জহুর আলীর ছোট ছেলে।
জানা গেছে, মঙ্গলবার সকাল ৮টার দিকে জয়পুরহাটের লাবিব আব্দুল্লাহকে তার চাচির কাছ থেকে নিয়ে মুরগির মাংস দিয়ে ভাত খাওয়ানোর কথা বলে ডেকে নিয়ে যান ভাবি রীমা। একটু পরে তাকে খুঁজতে গিয়ে তার ভাবির ঘরে শিশুটির নিথর দেহ পড়ে থাকতে দেখে চিৎকার দিয়ে ওঠেন তার চাচি খাদিজা বেগম। পরে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জয়পুরহাট আধুনিক জেলা হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

নিহত লাবিবের বড় বোন জেমি আক্তার অভিযোগ করে বলেন, আমার বাবার পাঁচ-ছয় বিঘা জমি একাই ভোগ দখলের জন্য আমার ভাবি লাবিবকে হত্যা করেছেন।

পাঁচবিবি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পলাশ চন্দ্র দেব জানান, পারিবারিক কলহের জের ধরে এ হত্যাকাণ্ডটি ঘটেছে। আর হত্যার বিষয়টি পুলিশের কাছে স্বীকার করায় অভিযুক্ত রীমা আক্তারকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

news24bd.tv/ তৌহিদ

সম্পর্কিত খবর

;