১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে বৈশাখী মেলা
১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে বৈশাখী মেলা

১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে বৈশাখী মেলা

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি

ঠাকুরগাঁও রাণীশংকৈল ডিগ্রি কলেজ মাঠে ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে গত ৯ মে ১০ দিনব্যাপী বৈশাখী মেলার উদ্বোধন করেছে মেলা কমিটি। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ঠাকুরগাঁও রাণীশংকৈল ডিগ্রি কলেজে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ২০২০ সালের ডিগ্রি পাশ ও সার্টিফিকেট কোর্স ২য় বর্ষের পরীক্ষা গত ৪ এপ্রিল এ শুরু হয়ে আগামী ২৫মে শেষ হওয়া কথা। কিন্তু পরীক্ষা শেষ হতে না হতেই সে মাঠে মেলা কমিটির লোকজন ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে আয়োজন করেছে বৈশাখী মেলা। একদিকে যেমন মেলা কমিটি আইন ভঙ্গ করেছে অপরদিকে পরীক্ষার্থীরা পড়েছে বিপাকে।

তবে সচেতন মানুষ বলছেন, পৌরসভা এলাকায় অনেক ফাঁকা মাঠ রয়েছে। বির্তক না করে সে জায়গাগুলোতে মেলা বসাতে পারতো মেলা কমিটি। এদিকে কলেজ মাঠে মেলা বসানোর ফলে রাস্তায় সব সময় যানজট লেগেই রয়েছে ফলে শিক্ষার্থী সহ সাধারণ মানুষের দুর্ঘটনা হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

মেলা কমিটির সভাপতি তাজুল ইসলামের কাছে মেলার অনুমতি আছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা ডিসি স্যারের কাছে গিয়েছিলাম তিনি লিখিতভাবে না দিলেও মৌখিকভাবে অনুমতি দিয়েছেন।

মেলা কমিটির সম্পাদক সাবেক জাতীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক ইয়াসিন আলী বলেন, আমরা দুই যুগেরও বেশি সময় ধরে মেলা করে আসছি এটা তো বাণিজ্যিক মেলা না সাংস্কৃতিক মেলা। এই মেলা চালাতে ডিসি মহোদয় মৌখিকভাবে অনুমতি দিয়েছেন।  

রাণীশংকৈল থানার অফিসার ইনর্চাজ এসএম জাহিদ ইকবাল বলেন, বৈশাখী মেলা নিয়ে আমার কোনো বক্তব্য নেই এগুলো ইউএনও সাহেব ভালো জানেন। আর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সোহেল সুলতান জুলকার নাইন কবির বলছেন দিনের বেলায় মেলা বন্ধ রেখে পরীক্ষা চলবে। সমস্যা কিছু হবে না।

জানতে চাইলে রাণীশংকৈল ডিগ্রি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ সইদুল হক বলেন, মেলা পরিচালনার জন্য ডিসির মৌখিক অনুমতি আছে। তবে যেদিন পরীক্ষা চলবে সেদিন ১৪৪ ধারা শতভাগ বলবৎ থাকবে।

এ ব্যাপারে ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক মাহবুবুর রহমান বলেন, ১৪৪ ধারা নিদির্ষ্ট সময়ের জন্য জারি থাকে যখন পরীক্ষা চলবে তখন সাধারণ মানুষ সেখানে প্রবেশ করতে পারবে না। পরীক্ষার সময় এবং মেলার সময় ভিন্ন। পরীক্ষার সময় যেভাবে ১৪৪ ধারা জারি থাকে সে নিয়মেই চলবে। লিখিত অনুমতি দেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি এড়িয়ে যান।

news24bd.tv/ তৌহিদ

;