শ্রীলঙ্কায় দেখামাত্র গুলির নির্দেশ
শ্রীলঙ্কায় দেখামাত্র গুলির নির্দেশ

সংগৃহীত ছবি

শ্রীলঙ্কায় দেখামাত্র গুলির নির্দেশ

অনলাইন ডেস্ক

নজিরবিহীন অর্থনৈতিক সংকটের মুখে থাকা শ্রীলঙ্কায় বিগত কয়েক সপ্তাহ মূলত শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ হয়েছে। তবে সোমবার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসের সমর্থকরা বাইরে থেকে রাজধানীতে প্রবেশের চেষ্টা করে বিক্ষোভকারীদের ওপর চড়াও হলে সহিংসতা ছড়িয়ে পড়ে। শ্রীলঙ্কায় সরকারি সম্পদ বিনষ্টকারীদের দেখামাত্র গুলি করার নির্দেশ দিয়েছে দেশটির সরকার। ডেকান হেরাল্ডের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এক বিবৃতিতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে এ নির্দেশ দিয়েছে।

শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসে এই মন্ত্রণালয়ের প্রধান।

মন্ত্রণালয়টি বলেছে, কাউকে সরকারি সম্পত্তি লুটপাট বা মানবজীবনের ক্ষতি করতে দেখলে নিরাপত্তা বাহিনীকে গুলি করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এর আগে সেনা ও পুলিশ বাহিনীকে জরুরি ক্ষমতা দেয় শ্রীলংকা সরকার। এই ক্ষমতাবলে বিনা পরোয়ানায় গ্রেফতার করতে পারবে নিরাপত্তা বাহিনী।

সরকারি নির্দেশনায় বলা হয়েছে, সেনাবাহিনী কাউকে গ্রেফতার করলে পুলিশের কাছে হস্তান্তরের আগে ২৪ ঘণ্টা নিজেদের হেফাজতে রাখতে পারবে।

এদিকে সোমবার পুরো শ্রীলংকায় দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়ে সরকার বিরোধী আন্দোলন। এদিন সদ্যই পদত্যাগ করা প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজপাকসের সমর্থকরা কলম্বোতে সরকার বিরোধী আন্দোলনকারীদের ওপর চড়াও হয়। তারা লাঠি দিয়ে আন্দোলনকারীদের ওপর আঘাত করে।  

এরপরই পুরো দেশে ছড়িয়ে পড়ে এ সংঘর্ষ। স্থানীয় সময় রাতে বিক্ষুদ্ধ জনতা সরকার দলীয় রাজনীতিবীদদের বাড়িতে হামলা ও আগুন ধরিয়ে দেয়। তাছাড়া রাজাপাকসের সরকারি বাড়িতেও হামলা করার চেষ্টা চালায়।  

সংবাদ সংস্থা এএফপি  জানিয়েছে, রাতের বেলা কলম্বো বিমানবন্দরের রাস্তা অবরোধ করে জনতা। জানা গেছে রাজাপাকসেপন্থি কেউ যেন দেশ ছেড়ে না পালাতে পারে সেজন্য বিমানবন্দর ঘেরাও করেছিলেন তারা।  

পুলিশ জানিয়েছে, সোমবারের সংঘর্ষে আটজন প্রাণ হারিয়েছেন। এছাড়া আরও ২২৫ জন আহত হয়েছেন।  এদিকে সোমবার মাহিন্দা রাজাপাকসের সরকারি বাসভবনে উত্তেজিত জনতা হামলা করার পর তাকে হেলিক্প্টারে করে উদ্ধার করে নিয়ে যায় সেনাবাহিনী।  চামাল পোলওয়াত্তে নামে একজন আন্দোলনকারী জানান, প্রেসিডেন্টকেও পদত্যাগ করতে হবে। তিনি পদত্যাগ না করা পর্যন্ত তারা আন্দোলন চালিয়ে যাবেন।

news24bd.tv/আলী

;