সহিংসতা দমনে গুলি করার নির্দেশ অস্বীকার করলো সেনাবাহিনী
সহিংসতা দমনে গুলি করার নির্দেশ অস্বীকার করলো সেনাবাহিনী

সংগৃহীত ছবি

সহিংসতা দমনে গুলি করার নির্দেশ অস্বীকার করলো সেনাবাহিনী

অনলাইন ডেস্ক

শ্রীলঙ্কার সাধারণ জনগণকে গুলি চালানোর জন্য সেনাবাহিনী প্রস্তুত, এ তথ্যকে ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছেন দেশটির সেনাবাহিনীর প্রধান শভেন্দ্র সিলভা। গতকাল মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে তিনি জানান, সশস্ত্রবাহিনীর সদস্যরা কোনো পরিস্থিতিতেই এ ধরণের অপমানজনক কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ করবেনা।

এর আগে ফ্রন্টলাইন সোসালিষ্ট পার্টির দুমিন্দা নাগামুওয়া অভিযোগ তুলেছিলেন, প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসে নিজের ক্ষমতা টিকিয়ে রাখতে সাধারণ জনগণের বিরুদ্ধে সেনাবাহিনীকে ব্যবহার করতে পারেন।

নজিরবিহীন অর্থনৈতিক সংকটের মুখে থাকা শ্রীলঙ্কায় বিগত কয়েক সপ্তাহ মূলত শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ হয়েছে।

তবে সোমবার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসের সমর্থকরা বাইরে থেকে রাজধানীতে প্রবেশের চেষ্টা করে বিক্ষোভকারীদের ওপর চড়াও হলে সহিংসতা ছড়িয়ে পড়ে। শ্রীলঙ্কায় সরকারি সম্পদ বিনষ্টকারীদের দেখামাত্র গুলি করার নির্দেশ দিয়েছে দেশটির সরকার। ডেকান হেরাল্ডের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এক বিবৃতিতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে এ নির্দেশ দিয়েছে। শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসে এই মন্ত্রণালয়ের প্রধান।

মন্ত্রণালয়টি বলেছে, কাউকে সরকারি সম্পত্তি লুটপাট বা মানবজীবনের ক্ষতি করতে দেখলে নিরাপত্তা বাহিনীকে গুলি করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এর আগে সেনা ও পুলিশ বাহিনীকে জরুরি ক্ষমতা দেয় শ্রীলংকা সরকার। এই ক্ষমতাবলে বিনা পরোয়ানায় গ্রেফতার করতে পারবে নিরাপত্তা বাহিনী।

এদিকে, সদ্য পদত্যাগ করা প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসে সপরিবারে রাজধানী কলম্বো ছেড়ে দেশটির উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় ত্রিঙ্কোমালি শহরের একটি নৌঘাঁটিতে আশ্রয় নিয়েছেন। এমপিদের দেশত্যাগ ঠেকাতে বিমানবন্দরের প্রবেশমুখে অবস্থান নিয়েছেন বিক্ষোভকারীরা। দেশজুড়ে কারফিউর মেয়াদ বৃহস্পতিবার পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হয়েছে।

news24bd.tv/রিমু

;