স্বামী-স্ত্রীর একসঙ্গে রেস্টুরেন্ট বা পার্কে যেতে মানা তালেবানের
স্বামী-স্ত্রীর একসঙ্গে রেস্টুরেন্ট বা পার্কে যেতে মানা তালেবানের

স্বামী-স্ত্রীর একসঙ্গে রেস্টুরেন্ট বা পার্কে যেতে মানা তালেবানের

অনলাইন ডেস্ক

কিছুদিন আগেই আফগান নারীদের প্রকাশ্য স্থানে মুখ-ঢাকা বোরকা পরা বাধ্যতামূলক করা হলো। গত কয়েক দশক পর আবারও এটি চালু করল তালেবান সরকার। এবার তর্কযোগ্যভাবে নারী-পুরুষের ওপর সবচেয়ে কঠিন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করল তালেবান। বলা হয়েছে, স্বামী-স্ত্রী হলেও রেস্টুরেন্টে একসাথে খেতে বা পার্কে ঘুরতে পারবে না আফগানিস্তানের হেরাত প্রদেশের বাসিন্দারা।

বৃহস্পতিবার (১২ মে) নতুন এই ডিক্রি জারি করেছে আফগানিস্তানের তালেবান প্রশাসন।

ডেইলি মেইলের খবরে বলা হয়, গেলো সপ্তাহেই গোটা শরীর ঢাকা বোরকা এবং হিজাব পরা বাধ্যতামূলক করেছিল তালেবান। এরই ধারাবাহিকতায় এলো রেস্টুরেন্ট ও পার্কে নারী-পুরুষের একসাথে ঘুরে বেড়ানোর ওপর এই নিষেধাজ্ঞা। এখানে বলা হয়, এই নিষেধাজ্ঞা বলবৎ হবে স্বামী-স্ত্রীর ক্ষেত্রেও। তাছাড়া, আফগানিস্তানের তৃতীয় বৃহত্তম শহর হেরাতে নারীদের ড্রাভিং লাইসেন্স ইস্যু করার ওপরেই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। প্রদেশটিতে পুরুষ সঙ্গী ছাড়া ট্যাক্সিতে ওঠার দায়ে আইনের সম্মুখীনও করা হয়েছে কয়েকজন নারীকে।

তালেবানের নৈতিকতা বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রিয়াজুল্লাহ্ সেরাত জানান, রেস্তোঁরা মালিকদের দেওয়া হয়েছে মৌখিক নির্দেশনা। পুরুষ ও নারীদের আলাদা বসার স্থান নির্ধারণ করতে হবে। নতুবা, গুণতে হবে জরিমানা। তাছাড়া, হেরাত প্রদেশের পার্কগুলোয় বৃহস্পতি, শুক্র, শনিবার যেতে পারবেন নারীরা। সপ্তাহের অন্য দিনগুলোয় ব্যায়াম এবং ঘোরার জন্য ঢুকতে পারবেন পুরুষরা। পরে, গোটা আফগানিস্তানে এই নিয়ম চালুর ইঙ্গিত দিয়েছে তালেবান।

news24bd.tv/ তৌহিদ

;