আমিরাতের প্রেসিডেন্টের মৃত্যুতে বাংলাদেশে রাষ্ট্রীয় শোক
আমিরাতের প্রেসিডেন্টের মৃত্যুতে বাংলাদেশে রাষ্ট্রীয় শোক

সংগৃহীত ছবি

আমিরাতের প্রেসিডেন্টের মৃত্যুতে বাংলাদেশে রাষ্ট্রীয় শোক

অনলাইন ডেস্ক

সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রেসিডেন্ট শেখ খলিফা বিন জায়েদ আল নাহিয়ানের মৃত্যুতে বাংলাদেশে এক দিনের রাষ্ট্রীয় শোক পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। শনিবার এই শোক পালন করা হবে বলে শুক্রবার সন্ধ্যায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ এক প্রজ্ঞাপনে জানিয়েছে।  

এতে বলা হয়েছে, শনিবার বাংলাদেশের সব সরকারি, আধাসরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ সব সরকারি ও বেসরকারি ভবন এবং বিদেশে বাংলাদেশের মিশনগুলোতে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত থাকবে।

প্রেসিডেন্ট শেখ খলিফা বিন জায়েদ আল নাহিয়ানের রুহের মাগফেরাত কামনা করে একইদিন বাংলাদেশের সব মসজিদে বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত হবে বলেও জানিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

এ ছাড়া তার আত্মার শান্তি কামনায় অন্যান্য ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানেও বিশেষ প্রার্থনার আয়োজন করা হবে।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রেসিডেন্ট এবং আবুধাবির শাসক শেখ খলিফা বিন জায়েদ আল নাহিয়ান ৭৩ বছর বয়সে শুক্রবার মারা গেছেন।  

আমিরাতের প্রেসিডেন্টের মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

দেশটির প্রেসিডেন্ট বিষয়ক মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, মৃত্যুতে দেশজুড়ে ৪০ দিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করা হয়েছে। একই সঙ্গে জাতীয় পতাকা রাখা হবে অর্ধনমিত। মন্ত্রণালয়সহ সব ধরনের অফিস বন্ধ থাকবে তিনদিন।

২০০৪ সালের ৩ নভেম্বর থেকে প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করছিলেন শেখ খলিফা বিন জায়েদ আল নাহিয়ান। তার বাবার উত্তরসূরী হিসেবে তিনি দায়িত্ব নেন। তার বাবা ১৯৭১ সাল থেকে দেশটির প্রথম প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন। ২০০৪ সালের ২ নভেম্বর মারা যান তিনি।  

 শেখ খলিফা বিন জায়েদ আল নাহিয়ানের জন্ম ১৯৪৮ সালে। তিনি আবু ধাবির ১৬তম শাসক ও আমিরাতের দ্বিতীয় প্রেসিডেন্ট। তিনি শেখ জায়েদের জ্যেষ্ঠ পুত্র। জায়েদ আল নাহিয়ান সংযুক্ত আরব আমিরাতের দ্বিতীয় প্রেসিডেন্ট। তিনি ২০০৪ সালের ৩ নভেম্বর থেকে প্রেসিডেন্টের পাশাপাশি আবুধাবির শাসকের দায়িত্ব পালন করছিলেন।

news24bd.tv/আলী

;