নারী সংক্রান্ত দ্বন্দ্বে খুলনায় ব্যবসায়ী খুন
নারী সংক্রান্ত দ্বন্দ্বে খুলনায় ব্যবসায়ী খুন

সংগৃহীত ছবি

নারী সংক্রান্ত দ্বন্দ্বে খুলনায় ব্যবসায়ী খুন

অনলাইন ডেস্ক

খুলনার ফুলতলা বণিক কল্যাণ সোসাইটির নেতা মো. রকিবুল ইসলাম হত্যায় পূর্বশত্রুতা ও পারিবারিক দ্বন্দ্ব সামনে রেখে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। প্রাথমিকভাবে জানা যায়, সদ্য বিয়ে করা স্ত্রী পিয়ারী খাতুন ওরফে বর্ষার সঙ্গে নিহতের পরিবারের সুসম্পর্ক ছিল না। এ ছাড়া বর্ষার আগে নওয়াপাড়ায় আরেকটি বিয়ে হয়েছিল।  

সেখান থেকে পালিয়ে এসে তিনি গোপনে রকিবুলকে বিয়ে করেন।

ঘটনার প্রতিশোধ নিতে এ হত্যা হতে পারে বলে ধারণা করছেন নিহতের ভগ্নিপতি খায়রুল ইসলাম।

এদিকে রকিবুল হত্যায় তিন ভাড়াটে খুনি অংশ নেয়। যশোরে অভয়নগর থেকে ফেরার পথে বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে দত্তগাতি এলাকায় তাকে গুলি করা হয়। এতে রকিবুলের সঙ্গে মোটরসাইকেলে থাকা তার স্ত্রী বর্ষার ডান হাতেও শর্টগানের ছররা গুলি লাগে। স্থানীয়রা রক্তাক্ত অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে ফুলতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক রকিবুলকে মৃত ঘোষণা করেন।  

এদিকে ঘটনার পর অপরিচিত কয়েকজন দামি গাড়িতে বর্ষাকে ফুলতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে খুলনা মেডিকেলে নিয়ে আসে। বর্ষার সঙ্গে তাদের কী সম্পর্ক এ প্রশ্ন তুলেছেন নিহতের পরিবার।  

ফুলতলা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইলিয়াস তালুকদার জানান, খবর পাওয়ার পর তাৎক্ষণিক পুলিশ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে উপস্থিত হয়। সেখানে নিহতের স্ত্রীকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর গুলিবিদ্ধ থাকায় তাকে খুলনা মেডিকেলে স্থানান্তর করা হয়েছে। কিন্তু কারা তাকে গাড়িতে খুলনায় নিয়ে গেছেন জানি না।

জানা যায়, অভয়নগরের দত্তগাতি এলাকার আলম মেম্বারের বাড়িতে দাওয়াত ও লেনদেন সংক্রান্ত ব্যাপারে কথা বলতে বৃহস্পতিবার বিকালে রকিবুল তার স্ত্রীকে নিয়ে সেখানে যান। খাওয়া-দাওয়া শেষে কিছু টাকা নিয়ে রাত ৮টার দিকে ফুলতলায় ফেরার পথে তাকে গুলি করে হত্যা করা হয়।

news24bd.tv/কামরুল

;