তেল মজুদ করায় দেড় লাখ টাকা জরিমানা, প্রতিষ্ঠান সিলগালা
তেল মজুদ করায় দেড় লাখ টাকা জরিমানা, প্রতিষ্ঠান সিলগালা

তেল মজুদ করায় দেড় লাখ টাকা জরিমানা, প্রতিষ্ঠান সিলগালা

অনলাইন ডেস্ক

মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলায় তেল মজুত রাখায় প্রতিষ্ঠানটিকে দেড় লাখ টাকা জরিমানা ও সাময়িক সিলগালা করে দিয়েছে জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

শনিবার (১৪ মে) রাত সাড়ে ৯টার দিকে জেলা ভোক্তা সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক আসাদুজ্জামান রুমেল জানান, 
ওই প্রতিষ্ঠান থেকে ১০ হাজার লিটার সয়াবিন তেল উদ্ধার করা হয়েছে।

জানা গেছে, উপজেলার ধল্লা বাজারে আলতাফ স্টোর নামে একটি প্রতিষ্ঠান অভিযানকালে সেখান থেকে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের এক, দুই ও পাঁচ লিটারের ৩ হাজার ৫০০ লিটার তেল গুদামে মজুত অবস্থায় পাওয়া যায়। এ ছাড়া পাঁচ লিটারের বোতলজাত সয়াবিন তেল খুলে ড্রামে ভরা অবস্থায় ৬ হাজার ৫০০ লিটার তেল পাওয়া যায়।

প্রতিষ্ঠানটি ২ লিটারের বোতলজাত তেল নির্ধারিত মূল্যের অতিরিক্ত দামে বিক্রি করে আসছে।

এ সকল অভিযোগের ভিত্তিতে প্রতিষ্ঠানটিকে দেড় লাখ টাকা জরিমানা ও সাময়িকভাবে সিলগালা করে দেওয়া হয়েছে। উদ্ধারকৃত তেল উপস্থিত ভোক্তাদের মাঝে বিক্রির ব্যবস্থা করা হয়েছে। উপজেলার সিংগাইর বাজারে অভিযানকালে বেশি দামে সয়াবিন তেল বিক্রির দায়ে হৃদয় স্টোরকে ৫০ হাজার টাকা পরিমানা করা হয়।  

এ ছাড়া সিরাজপুর বাজারে সরিষার তেল প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান আওলাদ মিলে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খোলা অবস্থায় তেল সংরক্ষণ, কারখানার। ভেতরে মৃত তেলাপোকা, ইঁদুর যত্রতত্র পড়ে থাকায় অভিযানকালে এই প্রতিষ্ঠানকেও ৫০ হাজার টাকা জরিমানাসহ কারখানার সব কার্যক্রম বন্ধ করে সিলগালা করে দেওয়া হয়।

জেলা ভোক্তা সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক আসাদুজ্জামান রুমেল বলেন, জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ আব্দুল লতিফের নির্দেশে জেলার বিভিন্ন বাজারে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। আজ সিংগাইর ও ধল্লা বাজারে দিনব্যাপী অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় অবৈধভাবে সয়াবিন তেল মজুত ও নির্ধারিত দামের চেয়ে বেশি মূল্যে বিক্রির দায়ে ভোক্তা অধিকার আইনে জরিমানা ও দুটি প্রতিষ্ঠান সাময়িকভাবে সিলগালা করা হয়।

অভিযানে সিংগাইর উপজেলার স্যানিটারি ইন্সপেক্টর আবুল কালাম আজাদ ও আনসার সদস্যরা সহযোগিতা করেন। জনস্বার্থে এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান জেলা ভোক্তা অধিদপ্তর।

news24bd.tv তৌহিদ

;