'আনুষ্ঠানিক বক্তব্য পেলে পি কে হালদারের ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা'
'আনুষ্ঠানিক বক্তব্য পেলে পি কে হালদারের ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা'

ফাইল ছবি

'আনুষ্ঠানিক বক্তব্য পেলে পি কে হালদারের ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা'

তালুকদার বিপ্লব

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, পি কে হালদারকে গ্রেপ্তারের বিষয়ে আমাদের কাছে ভারত থেকে আনুষ্ঠানিক কোনো বক্তব্য আসেনি। সে রকম তথ্য পেলে তাকে দেশে ফিরিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নেবো।

আজ রোববার জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে বাংলাদেশ প্রগতিশীল কলামিস্ট ফোরাম আয়োজিত ‘শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন ও ইতিহাসের পূন: নির্মাণ’ শীর্ষক এক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।  

এর আগে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, শেখ হাসিনা দেশে না ফিরলে বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিচার হতো না, মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচার হতো না, তিস্তার পানি আনা সম্ভব হতো না, ভারতের সঙ্গে ছিট মহল বিনিময় হতো না, বিনা রক্তপাতে বাংলাদেশের সমান সমুদ্রসীমা আমরা পেতাম না।

এছাড়া রহিঙ্গা কিংবা করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে মোকাবিলা করা সম্ভব হয়েছে বলে জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

সেমিনারে সংগঠনের সভাপতি অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন কলামিষ্ট ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান আবদুল মান্নান।

এ সময় সেমিনারে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ প্রগতিশীল কলামিস্ট ফোরামের সাধারন সম্পাদক  অধ্যাপক ড. মিল্টন বিশ্বাস, গাইবান্ধা ৪ আসনের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মনোয়ার হোসেন, স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান আলম সাজু।

উল্লেখ্য, হাজার কোটি টাকা পাচারকারী প্রশান্ত কুমার হালদার বা পি কে হালদারসহ পাঁচ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৩ দিনের রিমান্ড দিয়েছে ভারতের একটি আদালত। আজ শনিবার পশ্চিমবঙ্গের ব্যাঙ্কশাল আদালত তাদের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের তথ্য মতে, পশ্চিমবঙ্গের উত্তর চব্বিশ পরগনা থেকে পি কে হালদারসহ ছয় জনকে গ্রেপ্তার করে ভারতের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)। পরে তাদেরকে পশ্চিমবঙ্গের ব্যাঙ্কশালের আদালতে নেওয়া হলে পি কে হালদারসহ পাঁচজনের তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

news24bd.tv/রিমু