ধর্ষণের ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয় অভিযুক্ত, গ্রেপ্তার ১
ধর্ষণের ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয় অভিযুক্ত, গ্রেপ্তার ১

ধর্ষণের ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয় অভিযুক্ত, গ্রেপ্তার ১

অনলাইন ডেস্ক

রাজধানীর বাড্ডা সাঁতারকুল রোডের মুন্সী বাড়িতে এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে সোহেল রানা (২২) নামে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৭ মে) বিকেল ৫টায় ওই কিশোরীর শারীরিক পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারের (ওসিসিতে) ভর্তি করা হয়েছে।

ভুক্তভোগী কিশোরীর বাবা বলেন, আমার মেয়েকে ধর্ষণ করেছে সোহেল রানা। ধর্ষণের সময় ছবি তুলে রাখে সোহেল রানা।

গতকাল জানতে পারি ইন্টারনেটে আমার মেয়ের খারাপ ছবি ছড়িয়ে দিয়েছে। পরে আমি বাড্ডা থানাকে বিষয়টি জানালে তারা অভিযান চালিয়ে সোহেল রানাকে গ্রেপ্তার করে। আমি বাদী হয়ে সোহেল রানার বিরুদ্ধে বাড্ডা থানায় একটি মামলা দায়ের করি।

বাড্ডা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আশরাফুল আলম বলেন, আমরা বিষয়টি জানার পর অভিযান চালিয়ে সোহেল রানাকে গ্রেপ্তার করি। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে বাড্ডা থানায় ধর্ষণ ও পর্নোগ্রাফি আইনে মামলা (মামলা নম্বর-৩৩) দায়ের করেন। ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরীকে শারীরিক পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজের ওসিসিতে পাঠানো হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ধর্ষণের পর ওই কিশোরী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। কিন্তু লোকলজ্জার ভয়ে পরিবার সেটি গোপন রাখে। তবে ধর্ষণের সময় তুলে রাখা ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয় অভিযুক্ত। এরপর বিষয়টি পরিবার জানতে পারলে সোহেল রানার বিরুদ্ধে ভুক্তভোগী কিশোরীর বাবা মামলা করেন। আগামীকাল সোহেল রানাকে আদালতে পাঠানো হবে বলে জানান এসআই আশরাফুল।

news24bd.tv তৌহিদ