কক্সবাজারের হোটেলে আটকে রেখে ছাত্রীকে ধর্ষণ
কক্সবাজারের হোটেলে আটকে রেখে ছাত্রীকে ধর্ষণ

সংগৃহীত ছবি

কক্সবাজারের হোটেলে আটকে রেখে ছাত্রীকে ধর্ষণ

অনলাইন ডেস্ক

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ থেকে দশম শ্রেণিতে পড়ুয়া ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভনে কক্সবাজারের একটি হোটেলে নিয়ে আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনায় সামিউল হাসান অর্ণব নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। সামিউল হাসান অর্ণব ঈশ্বরগঞ্জ পৌর শহরের কাঁকনহাটি এলাকার মোঃ হুমায়ন কবির সবুজ’র ছেলে। বৃহস্পতিবার (১৯ মে) ছাত্রীকে ফরেনসিক পরীক্ষার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এবং জবানবন্দির জন্য আদালতে পাঠায় পুলিশ।

এর আগে বুধবার (১৮ মে) রাতে ওই স্কুল ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে সামিউল হাসান অর্ণবকে আসামী করে ঈশ্বরগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন। ঈশ্বরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোস্তাছিনুর রহমান  বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সুত্র জানায়, সামিউল হাসান অর্ণবের সাথে ওই স্কুল ছাত্রীর প্রেমের সম্পর্ক ছিল। ওই সম্পর্কের জেরে গত ১৩ মে স্কুলে যাওয়ার পথে তাকে উঠিয়ে নিয়ে কক্সবাজারের একটি হোটেলে নিয়ে যায় অর্ণব। হোটেলের একটি রুমে দুই দিন আটকে রেখে তাকে ধর্ষণ করে অর্ণব। পরে বিয়ের জন্য চাপ দিলে ১৫ মে জেলার গৌরীপুর উপজেলার পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের সামনে রেখে অর্ণব পালিয়ে যায়। সেখান থেকে ওই স্কুল ছাত্রী বাড়িতে ফিরে তার পরিবারের কাছে বিষয়টি জানায়। পরে স্কুল ছাত্রীর বাবা অর্ণবের পরিবারকে বিষয়টি জানালেও কোন সুরাহা না করায় তারা মামলা করেন।

(ওসি)মোস্তাছিনুর রহমান আরও বলেন, আসামীকে এখনো গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি। তবে, তাকে গ্রেপ্তারে একাধিক টিম কাজ করছে বলেও জানান তিনি।

news24bd.tv/আলী