রাতে যৌন নির্যাতনের কথা বলে সকালে লাশ প্রবাসীর স্ত্রী
রাতে যৌন নির্যাতনের কথা বলে সকালে লাশ প্রবাসীর স্ত্রী

সংগৃহীত ছবি

রাতে যৌন নির্যাতনের কথা বলে সকালে লাশ প্রবাসীর স্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

প্রবাসী স্বামীর অনুপস্থতিতে বারবার শারীরিক ও যৌন নির্যাতনের চেষ্টা চালাচ্ছে দেবর আল-আমিন। রাতে মায়ের কাছে মোবাইলে এমন কথা জানানোর পর সকালে ঘরে মিলল প্রবাসীর স্ত্রী মলিনা আক্তারের ঝুলন্ত লাশ। শুক্রবার সকালে মেহেরপুর সদর উপজেলার আলমপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে।

নিহত মলিনা ঐ গ্রামের প্রবাসী সন্টু মিয়ার স্ত্রী ও কুলবাড়িয়া গ্রামের রহিদুল ইসলামের মেয়ে। তার সুমাইয়া নামে ২ বছরের একটি কন্যাসন্তান রয়েছে।

মলিনা আক্তারের মামা জনিরুল ইসলম বলেন, সন্টু মিয়া দীর্ঘদিন ধরে বিদেশে আছে। এই সুযোগে মলিনাকে শারীরিক ও যৌন হেনস্থা করতে শুরু করে তাদের দেবর আল-আমিন। বৃহস্পতিবার রাতে মলিনা তার মাকে ফোন করে বলেছিল- আলামিন শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করতে না পেরে তাকে মারধর ও যৌন নির্যাতন করছে। স্বামীর বাড়ি থেকে তাকে নিয়ে আসার আকুতি জানিয়েছিল। সকালে আমরা তার মৃত্যুর খবর পাই।

মেহেরপুর সদর থানার ওসি শাহ দারা খান বলেন, লাশ উদ্ধার করে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর কারণ জানা যাবে। ঘটনার পর থেকে নিহত মলিনা আক্তারের দেবর আল-আমিন হোসেনকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

news24bd.tv/আলী

;