মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৯ | আপডেট ৪৮ মিনিট আগে

‘বিয়ের প্রমিজ করে সে আমাকে কনভিন্স করে’

নিউজ টোয়েন্টিফোর ডেস্ক

‘বিয়ের প্রমিজ করে সে আমাকে কনভিন্স করে’

প্রেমিকের স্ত্রী-কন্যার হাতে মার খেয়েছেন ঢাকাই ছবির নায়িকা রাকা বিশ্বাস। শোনা যাচ্ছে, প্রেমিক শাহীন একজন ব্যবসায়ী। শাহীন এক বছর আগে নাকি রাকার পেছনে ঘুরে ঘুরে বিয়ে করার প্রমিজ করে কনভিন্স করে। এছাড়া শাহিন নিজের স্ত্রী নিয়ে সুখী নয় বলে জানিয়ে রাকাকে পটেয়েছিল। পরকীয়া প্রেমের জের ধরে এই মারের ঘটনা ছবিসহ শেয়ার করা হয়েছে ফেসবুকে।

রাকা তার ফেসবুক পেজে লিখেছেন, এইভাবে নির্যাতন করেছে শাহীনের পরিবারের সদস্যরা ও তার স্ত্রী। শাহীনকে কয়েকদিন মোবাইলে পাইনি, খুঁজতে গিয়েছিলাম তাই ওরা মেরে আমার এই হাল করেছে। শাহীনের বড় মেয়ে আমাকে বটি দিয়ে মারতে এসেছিল।

আরও পড়ুন: 'পরিচালকের কথায় ৭ বার সম্পূর্ণ নগ্ন হয়েছি'

রাকার আরও লেখেন, শাহীন নামের ওই ব্যক্তির সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে যান তিনি। শাহীন তার অশান্তির কারণে পরিবার থেকে সরে আসবেন এমন শর্তেই নাকি রাকার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন। বুধবার রাতে ফেসবুকে রাকা বিস্তারিত লিখেছেন।

তিনি লিখেছেন, আমার আব্বু নেই, তাই আমি পুলিশের কাছে না গিয়ে ফেসবুকেই আপনাদের জানিয়ে দিলাম। ভালোবেসে এই প্রতিদান পেলাম। সত্যি আজ যা হয়েছে শাহীনের প্ল্যানিং-এ হয়েছে। আমাকে সিড়ি দিয়ে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দিয়েছে। অর্ধেক গিয়ে আটকে না গেলে আমি মারা যেতাম হয়তো। শাহীন এক বছর আগে আমার পেছনে ঘুরে ঘুরে বিয়ে করার প্রমিজ করে আমাকে কনভিন্স করেছে। নিজের স্ত্রী-মেয়ে সম্পর্কে অনেক বাজে কথা বলেছে। বলেছে সে সুখী নয়, মায়া হয়েছিল। তাই ভালোবেসেছিলাম। এটাই আমার অপরাধ?

আরও পড়ুন: আমার বয়স নাকি ৪৬!

তবে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিলেও গণমাধ্যমের কর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ করেননি রাকা। নিজের ব্যবহৃত মুঠোফোনও বন্ধ রেখেছেন। ‘প্রেমের কেন ফাঁসি’ সিনেমার মাধ্যমে ঢালিউডে অভিষেক রাকা বিশ্বাসের। তার হাতে আরও বেশ কিছু সিনেমার কাজ আছে।

আরও পড়ুন: ফের নগ্ন পুনম

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য