প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এপিএ চুক্তি সই
প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এপিএ চুক্তি সই

সংগৃহীত ছবি

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এপিএ চুক্তি সই

অনলাইন ডেস্ক

২০২২-২৩ অর্থবছরের জন্য বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি (এপিএ) সই করেছে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ও এর আওতাধীন ৭টি দপ্তর ও সংস্থা। বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) দুপুরে এসব এপিএ চুক্তি সই হয়।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সিনিয়র সচিব মো. তোফাজ্জল হোসেন মিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব ড. আহমদ কায়কাউস, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সমন্বয়ক (এসডিজি বিষয়ক)  জুয়েনা আজিজ।

প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিবের উপস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পক্ষে সিনিয়র সচিব এবং আওতাধীন দপ্তর/সংস্থার পক্ষে দপ্তর/সংস্থা প্রধানরা বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি স্বাক্ষর করেন।

এ অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (বিডা) নির্বাহী চেয়ারম্যান মো. সিরাজুল ইসলাম, বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের (বেজা) নির্বাহী চেয়ারম্যান শেখ ইউসুফ হারুন, বাংলাদেশ রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চল কর্তৃপক্ষের (বেপজা) নির্বাহী চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল আবুল কালাম মোহাম্মদ জিয়াউর রহমান, জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (এনএসডিএ) নির্বাহী চেয়ারম্যান দুলাল কৃষ্ণ সাহা, পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ কর্তৃপক্ষের (পিপিপিএ) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মুহম্মদ ইব্রাহিম, এনজিও বিষয়ক ব্যুরোর পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) ড. মো. আশফাকুল ইসলাম বাবুল এবং আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ এর প্রকল্প পরিচালক আবু সালেহ মোহাম্মদ ফেরদৌস খান উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মহাপরিচালক এবং পরিচালকসহ গভর্নেন্স ইনোভেশন ইউনিট, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সকল কর্মকর্তা অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন গভর্নেন্স ইনোভেশন ইউনিটের উপপরিচালক আশরাফুল আলম।

অনুষ্ঠানে গভর্নেন্স ইনোভেশন ইউনিটের মহাপরিচালক ড. মোহাম্মদ আবদুল লতিফ বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তির (এপিএ) পটভূমি, এপিএ প্রণয়ন, পরীবিক্ষণ, মূল্যায়ন গাইডলাইন এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আওতাধীন ৭টি দপ্তর/সংস্থা কর্তৃক দাখিলকৃত এপিএ’র ওপর সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন।

বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের (বেজা) নির্বাহী চেয়ারম্যান জনাব শেখ ইউসুফ হারুন তাঁর সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে সরকারি দপ্তর/সংস্থায় অ্যানুয়াল পারফরম্যান্স অ্যাপ্রেইজাল রিপোর্ট পদ্ধতি বাস্তবায়নের উপর গুরুত্ব আরোপ করেন।

প্রধান অতিথি ড. আহমদ কায়কাউস এপিএ মূল্যায়ন এবং মূল্যায়ন প্রতিবেদন প্রকাশের ওপর গুরুত্ব আরোপ করে বক্তব্য উপস্থাপন করেন। বিশেষ অতিথি জুয়েনা আজিজ এপিএ’র বিষয়ে তাঁর সুচিন্তিত বক্তব্য দেন।

অনুষ্ঠানের সভাপতি মো. তোফাজ্জল হোসেন মিয়া এপিএ প্রণয়নে গভর্নেন্স ইনোভেশন ইউনিটের ভূমিকা তুলে ধরেন এবং বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জানান।

news24bd.tv/আলী