‘জামায়াত-বিএনপির গলায় গলায় খাতির’
‘জামায়াত-বিএনপির গলায় গলায় খাতির’

ফাইল ছবি

‘জামায়াত-বিএনপির গলায় গলায় খাতির’

অনলাইন ডেস্ক

জামায়াত-বিএনপির ভেতরে ভেতরে গলায় গলায় খাতির বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। বুধবার (৩১ আগস্ট) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে কৃষক লীগ আয়োজিত শোক দিবসের আলোচনা সভায় এ মন্তব্য করেন তিনি।

নির্বাচনে আসার জন্য বিএনপির প্রতি আহ্বান জানান ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘নির্বাচনে আসুন, প্রতিদ্বন্দ্বিতা করুন।

দেখবেন, কার কত ভোট আছে, কে কত জনপ্রিয়। পরিষ্কার হয়ে যাবে। ’

দলের নেতা–কর্মীদের উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘কোনো অবস্থাতেই মাথা গরম করা যাবে না। আমরা কাউকে আক্রমণ করব না।

আক্রমণ হলে পাল্টা আক্রমণ হবে। ’

চন্দ্রিমা উদ্যানে জিয়াউর রহমানের সমাধির কফিনে লাশ নেই জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘চট্টগ্রাম থেকে লাশ ঢাকায় আসলো। সেই লাশ চন্দ্রিমা উদ্যানে জানাজা শেষে সমাধি হল। এই সময়টা জিয়াউর রহমানের একটা ছবি দেখাতে পারবেন? তিনি ওই কফিনে আছেন- এর প্রমাণ নেই। ’

খালেদা জিয়ার জন্মদিনের কথা টেনে সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘একজন মানুষের কয়টা জন্মদিন থাকে? সর্বশেষ করোনা টেস্টের কিছুদিন আগে ছয় নম্বর জন্মদিন হল, ছয়টা জন্মদিবস। একটা মানুষের এত জন্মদিবস কিভাবে থাকে ফখরুল সাহেব? সত্যের মুখোমুখি হতে কেন ভয় পান?’

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের গুমের বিচার করা সংক্রান্ত বক্তব্যের জবাবে তিনি বলেন, ‘আজ যারা মানবাধিকার ও গুমের কথা বলেন, খুনের কথা বলেন, আবার বলেন, আওয়ামী লীগের নেতা–কর্মীদের বিচার করবেন। কার বিচার করবেন? আপনাদের অনেকের বিচার বাকি রয়েছে। আদালত শুধু প্রচলিত আদালত নয়, ইতিহাসের আদালত, জনতার আদালতও আছে; নিয়তির আদালতও আছে। ’

বিএনপি আমলের আলোচিত হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘২১ হাজার আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীকে হত্যা করেছেন। কত নারীর সম্ভ্রম নষ্ট করেছেন। ভুলে গেছেন, আহসান উল্লাহ মাস্টার, মঞ্জুরুল ইমাম, শাহ এ এম এস কিবরিয়া এভাবে কতজন। যশোরের সাংবাদিক শামসুর রহমান, খুলনার মানিক সাহা, বালু ভাই, কত হত্যাকাণ্ড এই বাংলায় সংঘটিত করেছেন! এগুলোর বিচার হবে না? এগুলো কি মানবাধিকার লঙ্ঘন নয়? আওয়ামী লীগের এত নেতা–কর্মীকে হত্যা করা হয়েছে। বিচারের মুখোমুখি আরও বাকি আছে। ’

গুমের বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘সত্যি যারা গুম হয়েছেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে এমন কোনো ঘটনা থাকলে প্রয়োজনে তদন্ত করে বের করা হবে। এখানে আমাদের কোনো ভয় নেই। নিজের দলের লোকদের শাস্তির ব্যবস্থা করতে শেখ হাসিনা এ যাবত কখনো কুণ্ঠিত হননি। দলের লোক অন্যায় করে বিনা শাস্তিতে পার হওয়ার উপায় নেই। ’

কৃষক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শরীফ আশরাফ আলীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক উম্মে কুলসুম স্মৃতি।

news24bd.tv/মামুন