বিদেশি কূটনীতিকদের মিয়ানমারের ওপর চাপ সৃষ্টির আহ্বান
বিদেশি কূটনীতিকদের মিয়ানমারের ওপর চাপ সৃষ্টির আহ্বান

সংগৃহীত ছবি

বিদেশি কূটনীতিকদের মিয়ানমারের ওপর চাপ সৃষ্টির আহ্বান

নাহিদ হোসেন

বাংলাদেশের সীমান্ত ঘেষে সংঘাত যেন থামছেই না মিয়ানমারে। গুলি আর গোলার শব্দে রীতিমতো আতঙ্কিত বান্দরবানের তমব্রুবাাসী। দেশটির রাষ্ট্রদূতকে চার দফা তলব করলেও নেপিদো কানে তোলেনি কূটনৈতিক প্রতিবাদ। দায়িত্বশীল রাষ্ট্র হিসাবে বাংলাদেশ বরাবরই শান্তির পক্ষে।

তাই সংকট সমাধানে কূটনৈতিক তৎপরতার আরো একধাপ এগুলো ঢাকা। ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্র সচিব রিয়ার এডমিরাল (অব.) মো. খোরশেদ আলম বলেছেন, মিয়ানমারের ওপর চাপ দিতে বিদেশি কূটনীতিকদের আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ।

আজ মঙ্গলবার ঢাকায় নিযুক্ত দশটিরও বেশি দেশের রাষ্ট্রদূতের কাছে পরিস্থিতি তুলে ধরেন ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্র সচিব। এসেছিলেন যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, ভারত, জাপান, অস্ট্রেলিয়া, জাপান, কানাডা, ইতালি, ফ্রান্সসহ আরও বেশ কয়েকটি দেশের রাষ্ট্রদূত।

যোগ দেন জাতিসংঘ ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতিনিধি।  

ঘণ্টাখানেক চলে আলোচনা। বাংলাদেশের সহনশীল আচরণকে সাধুবাদ জানায় দেশগুলো। পরে ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্র সচিব বলেন, মিয়ানমারের ওপর চাপ দিতে বিদেশি কূটনীতিকদের আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ।  

নেপিদোর সাথে সামরিকসহ সব স্তরে ঢাকা যোগাযোগ অব্যাহত রেখেছে বলেও জানান ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্র সচিব। বলেন, আমরা শান্তিপূর্ণ সমাধান চাই, সব স্তরে যোগাযোগ আছে।  

তবে মিয়ানমারের সাথে সবচেয়ে ভালো সম্পর্ক বলে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে শোনা গেলেও ব্রিফিংয়ে যোগ দেয়নি চীনের রাষ্ট্রদূত। যদিও আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিলো সব দেশকেই। এর আগে সোমবার আসিয়ারভুক্ত সাত দেশের রাষ্ট্রদূতের কাছেও পরিস্থিতি তুলে ধরে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

news24bd.tv/রিমু