১৮ বছরে ভোটার হওয়ার বিধান ‘বৈষম্যমূলক’
১৮ বছরে ভোটার হওয়ার বিধান ‘বৈষম্যমূলক’

প্রতীকী ছবি

১৮ বছরে ভোটার হওয়ার বিধান ‘বৈষম্যমূলক’

অনলাইন ডেস্ক

১৮ বছরে ভোটার হওয়ার বিধানকে ‘বৈষম্যমূলক’ ও ‘মানবাধিকারের লঙ্ঘন’ বলে আখ্যা দিয়েছেন নিউজিল্যান্ডের আদালত। সোমবার (২১ নভেম্বর) এ অ্যাখ্যা দেওয়া হয়। এ দিকে ভোটারদের বয়স সীমা কমিয়ে ১৬ বছর করতে দেশটির পার্লামেন্টে খসড়া বিল করা হবে বলে জানানো হয়েছে।

জানা যায়, সম্প্রতি নিউজিল্যান্ডে ভোটারদের বয়সসীমা কমিয়ে ১৬ করার বিষয়ে দাবি উঠে।

বিষয়টি আদালত পর্যন্ত গড়িয়েছে। এ বিষয়ে করা একটি আবেদন গ্রহণ করেছেন দেশটির সুপ্রিম কোর্ট। সেই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে দেশটির আদালত ১৮ বছরে ভোটার হওয়ার বিধানকে ‘বৈষম্যমূলক’ ও ‘মানবাধিকারের লঙ্ঘন’ বলে আখ্যা দেন।

নিউজিল্যান্ডের সুপ্রিম কোর্ট পর্যালোচনা করে দেখেছেন, ভোটাধিকার প্রয়োগের ক্ষেত্রে বয়সসীমা ১৮ দেশটির মানবাধিকার বিষয়ক আইনের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়।

নিউজিল্যান্ডের মানবাধিকার বিষয়ক আইন অনুযায়ী, দেশটিতে নাগরিকদের বয়স ১৬ হলেই সে সকল বৈষম্য থেকে মুক্ত হতে পারবে। তবে ইস্যুটি আলোচনার জন্য সংসদে আসতে হবে এবং একটি সংসদীয় কমিটির দ্বারা পর্যালোচনা করা উচিত। আদালত সংসদকে ভোটের বয়স পরিবর্তন করতে বাধ্য করতে পারে না।  
 
এদিকে মেক ইট সিক্সটিনের সহপরিচালক কেভেন টিপলার বলেছেন, আদালত যে রায় দিয়েছেন তা ঐতিহাসিক। আদালত পুরো বিষয়টি স্পষ্ট করে দিয়েছেন। সরকার এবং সংসদ আদালতের এই নির্দেশ উপেক্ষা করতে পারে না।  

এছাড়া দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাসিন্দা আর্ডার্ন জানিয়েছেন, ভোটের বয়সসীমা কমিয়ে ১৬ করার লক্ষ্যে সরকার খসড়া বিল তৈরি করবে। বয়সসীমা কমিয়ে আনার বিষয়ে তার সমর্থন রয়েছে। তবে সংসদে এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে।  

উল্লেখ্য, নিউজিল্যান্ডে ‘মেইক ইট সিক্সটিন’ নামে তরুণদের একটি দল বয়সসীমা কমানোর দাবি তুলেছে। তাদের বক্তব্য, জলবায়ু সঙ্কটের মতো বিষয়ে তাদের ভোটদানের অধিকার থাকা উচিত। কারণ এগুলো তাদের জীবন ও ভবিষ্যৎকে প্রভাবিত করে।

news24bd.tv/হারুন