এ ছবিটি কি খুনি চার্লস শোভরাজের নাকি কোনো এলাকার!

এই সেই ভাইরাল ছবি --স্টারডাস্ট।

এ ছবিটি কি খুনি চার্লস শোভরাজের নাকি কোনো এলাকার!

অনলাইন ডেস্ক

ফেসবুকে মাঝে মাঝেই এমন কিছু ছবি দেখা যায়, যাতে একটা অপটিক্যাল ইলিউশনের (Optical Illusions) তৈরি হয়। আসল ছবি কোনটা এমন?
এরকম ছবি ব্যাপক ভাইরালও হয়। এমন একটি ভাইরাল ছবি এটি। এটি গত শুক্রবার বলিউড অভিনেত্রী আলিয়া ভাট ইনস্ট্রাগ্রামে শেয়ার করে নিচে লেখেছেন, ‘ ছবিটি দেখুন ভালো করে।

বলুন কোনটা সত্য?’ সূত্র স্টারডাস্ট।

ছবিটি দেখলে চমকে উঠতে হয়। ঠিক কোন জায়গার ছবি তা বোঝা যায় না তবে কোনও গ্রাম্য এলাকা বা কোনও বস্তি এলাকা বলেই মনে হচ্ছে দেখে। আর গোটা ছবিটা দেখলে এক ঝলকে মনে হয় কারও মুখ।

নিচে একজন বলেছেন, এ ছবি সিরিয়াল কিলার চার্লস শোভরাজের। সত্যি কি খুনির ছবি নাকি কোনো এলাকার ছবি ?

প্রকৃতির কী বিচিত্র খেলা! এই ছবিটা যদি আসল হয়, তাহলে বলতেই হবে গোটা পরিস্থিতিটাই মিলেমিশে আশ্চর্যজনকভাবে মানুষের মুখের আদল নিয়েছে। টালির চালের ভাঙা বাড়িগুলো হয়েছে সেই মুখের চোখ আর নাক, ভাঙা পাঁচিল মুখ আর গলার আকার নিয়েছে। তবে ছবিটা আসল না ফটোশপ করা তা অবশ্য বোঝা যায়নি।

দ্য ওয়ালের এক প্রতিবেদন বলছে, ‘দৃষ্টিবিভ্রম’ বা ‘অপটিক্যাল ইলিউশনের’ অনেক ছবিই নেটমাধ্যমে ভাইরাল হয়। তবে এই ছবিটা যেন সব বিস্ময়কে ছাপিয়ে গেছে। ভাঙাচোরা, কাদামাখা গলিপথ, টালির চালের বাড়ি, স্থানে স্থানে জমে থাকা আবর্জনাও যেন ছবিটাকে অকল্পনীয় সুন্দর চেহারা দিয়েছে। সেখানে নোংরা, আবর্জনার দিকে চোখ যাবে না, অপলক চোখে চেয়ে থাকতে হবে সেই শান্ত, সৌম্য মুখের দিকে। কোনও এক অদ্ভুত সমাপতনে একটা অপরিষ্কার স্থানও সুন্দর মুখের চেহারা নিয়েছে। কোনও এক তরুণ যেন মায়াভরা, স্বপ্নমাখা চোখে চেয়ে আছে আপনারই দিকে। তার দুচোখে হাজারো প্রশ্ন। খেতে না পাওয়া, পরিশ্রমী মানুষগুলোর জন্য এমন ভাঙাচোরা, অপরিচ্ছন্ন স্থানই যেন বরাদ্দ।

যাঁরা উচ্চবিত্তদের আবর্জনা ঘাঁটে, তাঁরাই পাঁকে সংসার পাতে। আবর্জনা, অসুখ, অকাল মৃত্যু তাদের ভাগ্যলিপি রচনা করে। এই আবর্জনা বহিরঙ্গের, অন্তরঙ্গে যে সুন্দর মনগুলো অভাবের আড়ালে চাপা পড়ে আছে তাদেরই প্রতিভূ হয়ে সেই সৌম্য, সুন্দর মুখ যেন নীরব যন্ত্রণার বার্তা ঘোষণা করছে। যেন বলছে চেয়ে দেখো সুন্দরটা তো বাইরে, ভেতরের সত্যটা বড় কঠিন, নির্মম।

news24bd.tv/ডিডি

পাঠকপ্রিয়