কেন মদ্যপান করে আত্মহত্যা করতে গিয়েছিলেন বাইডেন ?

জো বাইডেন, টিভিনাইন ছবি।

কেন মদ্যপান করে আত্মহত্যা করতে গিয়েছিলেন বাইডেন ?

অনলাইন ডেস্ক

জো বাইডেন  জন্মের পর থেকেই খুব সাধারণ জীবন যাপন করে আসছেন। আইনজীবী হিসেবে তার ক্যারিয়ার শুরু। ১৯৬৬ সালে প্রথমবার বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন তিনি। তার প্রথম স্ত্রীর নাম ছিল নেইলিয়া হান্টার।

এই দম্পতির তিন সন্তান ছিল জোসেফ, রবার্ট হান্টার এবং নাওমি ক্রিস্টিনা অ্যামি। বেশ সুখেই যাচ্ছিল তাদের সংসার।  
কিন্তু একটা এক্সিডেন্টে প্রথম স্ত্রী মারা গেলেন খুব আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন জো বাইডেন।  
সম্প্রতি বিখ্যাত মার্কিন সাংবাদিক হাওয়ার্ড স্টার্নকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এ তথ্য প্রকাশ করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বাইডেন জানান ,‘ তার প্রথম স্ত্রী নিহত হওয়ায় মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছিলেন তিনি।
সারাক্ষণ বিষণ্ন থাকতেন। এক রাতে মদ্যপ অবস্থায় তার মনে হয়েছিল এই জীবনের কোনো অর্থ নেই। এ কথা মনে হওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যে ডেলাওয়্যার মেমোরিয়াল ব্রিজের উদ্দেশে গাড়ি নিয়ে বের হয়ে পড়েন বাইডেন। এরপর ব্রিজের ওপর থেকে নদীতে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করতে চান। কিন্তু ব্রিজে পৌঁছানোর পর হঠাৎ তার মনে হলো, তার আরও সন্তান আছে। যদি তিনি আত্মহত্যা করেন, তাহলে তাদের দেখাশোনা করার কেউ থাকবে না। সন্তানদের মুখ চোখের সামনে ভেসে ওঠামাত্র বাইডেন গাড়ি ঘুরিয়ে ফেলেন। ফিরে আসেন বাড়িতে। ’
আজ টিভিনাইন ও এবিসি টেলিভিশনে এই সাক্ষাৎকারের অংশবিশেষ পরিবেশন করা হয় এবং বলা হয় , জো বাইডেন সেই মানুষ যিনি মৃত্যুর কাছ থেকে ঘুরে এসে আবার নতুন করে জীবন শুরু করতে পারেন।  
মার্কিন রাজনীতি বিশ্লেষক সুসান সাসট্যাগ এ সম্পর্কে বলেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনের আগে এরকম অনেক গল্পের জন্ম হবে। ট্রাম্পও গল্প তৈরি করবেন। কারণ আমেরিকানরা হিরোইজম পছন্দ করেন।  
বাইডেন সাক্ষাৎকারে বলেন, ১৯৭৮ সালে জিল ট্রেসি জ্যাকবকে বিয়ে করেন তিনি। বিয়ের পর তার নাম হয় জিল বাইডেন। প্রসঙ্গত, বর্তমানে জো বাইডেনের স্ত্রী জিল বাইডেন। ফার্স্ট লেডিও বটে তিনি।

news24bd.tv/ডিডি
 

পাঠকপ্রিয়