ইউক্রেন ইস্যুতে হামলার আশংকা নাকচ করেছে মস্কো
ইউক্রেন ইস্যুতে হামলার আশংকা নাকচ করেছে মস্কো

ছবি : আলজাজিরা

ইউক্রেন ইস্যুতে হামলার আশংকা নাকচ করেছে মস্কো

ডেস্ক রিপোর্ট

পূর্ব ইউরোপে যুদ্ধের আশঙ্কা যেমন বাড়ছে, তেমনি বাড়ছে কূটনৈতিক তৎপরতাও । ইউক্রেন ইস্যুতে  সম্প্রতি অনুষ্ঠিত সব বৈঠকেই হামলার আশংকা নাকচ করেছে মস্কো। তাই প্রশ্ন উঠেছে, ইউক্রেন সীমান্তে তবে কেন রাশিয়ার এত সৈন্য ও অস্ত্র মোতায়েন এবং কী চায় পুতিন প্রশাসন? 

ইউক্রেন ইস্যুতে যুদ্ধের দামামা বাজছে। অথচ যুক্তরাষ্ট্র এবং পশ্চিমাদের এমন অভিযোগ ও আশংকাকে আমলেই নিচ্ছে না পুতিন প্রশাসন।

বারবার দাবি করছে ইউক্রেনের হামলার কোন পরিকল্পনা মস্কোর নেই। অথচ ইউক্রেন সীমান্তে অব্যাহতভাবে  ব্যাপক সৈন্য ও ভারী অস্ত্র মোতায়েন  করে চলছে মস্কো।  

তবে যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটোর সঙ্গে পৃথক বৈঠকে তাদের অবস্থান স্পষ্ট করেছে রাশিয়া। মস্কোর অন্যতম  চাওয়া সোভিয়েত ইউনিয়নে একসময় ছিল—এমন কোনো দেশ বিশেষ করে ইউক্রেন ন্যাটোর সদস্য হতে পারবে না। অর্থাৎ সাবেক সোভিয়েত এলাকায় ন্যাটোর বিস্তার বন্ধ করতে হবে স্থায়ীভাবে। রাশিয়ার চাওয়া  শুধু ইউক্রেনেই সীমাবদ্ধ নয়, পূর্ব ইউরোপে ন্যাটোর কোনো সামরিক উপস্থিতি থাকবে না বলেও দাবি মস্কোর।

তবে ইউক্রেনকে ন্যাটোতে অর্ন্তভূক্ত না করার রুশ দাবি প্রত্যাখান করেছে যুক্তরাষ্ট্র । বুধবার মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিনকেন জানান, ইউক্রেন ইস্যুতে কোনও ছাড় পাবে না মস্কো। তবে কূটনৈতিকভাবে সংকট নিরসনের  তাগিদ দেন তিনি। রাশিয়ার দাবিকে নাকচ করেছে ন্যাটোও। সেইসঙ্গে পূর্ব ইউরোপে ন্যাটোর কোনো সামরিক উপস্থিতি থাকবে না, মস্কোর এ চাওয়াকে একেবারেই উড়িয়ে দিচ্ছে ন্যাটো। জোটটি বলছে, ন্যাটোর দরজা সবার জন্যই খোলা।

আরও পড়ুন:

বিশ্ববাজারে অপরিশোধিত তেলের দাম বেড়েই চলেছে

চীনে বৈদ্যুতিক গাড়ির চাহিদা দুই কোটি ইউনিট ছাড়িয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা

তবে নিরাপত্তাসংক্রান্ত নিশ্চয়তা পেতে মরিয়া পুতিন প্রশাসন হুঁশিয়ারি দিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র ও তাদের মিত্ররা যদি রাশিয়া নিরাপত্তার দাবি না মানে এবং আগ্রাসী নীতি অব্যাহত রাখে তাহলে প্রতিশোধমূলক পদক্ষেপ নিতে পিছ পা হবে না মস্কো।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত    

;