বিশ্বে খাদ্য সংকট দেখা দিতে পারে : জাতিসংঘ
বিশ্বে খাদ্য সংকট দেখা দিতে পারে : জাতিসংঘ

সংগৃহীত ছবি

বিশ্বে খাদ্য সংকট দেখা দিতে পারে : জাতিসংঘ

নিবিড় আমীন

ইউক্রেন রাশিয়ার যুদ্ধের ফলে আরও ভয়াবহ প্রভাব পড়বে বিশ্বজুড়ে, আবারও এমন সতর্কবার্তা দিলো জাতিসংঘ। যুদ্ধের কারণে বিশ্বব্যাপী চরম খাদ্য সংকট তৈরী হতে পারে বলে সতর্কবার্তা দিয়েছে সংগঠনটি।

মূল্যবৃদ্ধির কারণে এর মধ্যে দরিদ্র দেশগুলো খাদ্য নিরাপত্তা ঝুঁকিতে রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতিসংঘের মহাসচিব। জার্মানি বলছে, এই সংকট রাতারাতি দূর হবে না, দীর্ঘ মেয়াদি হতে পারে।

বিশ্বব্যাপী খাদ্য নিরাপত্তার বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে বুধবার জাতিসংঘের একটি শীর্ষ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সভাপতিত্ব করেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন। বৈঠকে জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস বিশ্ববাসীর জন্য সতর্কবার্তা দিয়ে বলেন, রাশিয়া ইউক্রেনের যুদ্ধের প্রভাবে আসন্ন মাসগুলোতেই বিশ্বব্যাপী চরম খাদ্য সংকট দেখা দিতে পারে। যেখানে সবচেয়ে বেশি ক্ষতির মুখে পড়বে দরিদ্র দেশগুলো।

তিনি বলেন, মূল্যবৃদ্ধির কারণে এর মধ্যে দরিদ্র দেশগুলো খাদ্য নিরাপত্তা ঝুঁকিতে রয়েছে। ইউক্রেনের খাদ্য রপ্তানি যুদ্ধ পূর্ববর্তী অবস্থায় না ফিরলে বিশ্বজুড়েই ক্ষুধা ও অপুষ্টি বাড়বে। এমনকি বিশ্ব দুর্ভিক্ষের মুখেও পড়ে যেতে পারে, যা কয়েক বছর পর্যন্ত চলমান থাকবে।

জাতিসংঘের তথ্যানুযায়ী, গেল বছরের তুলনায় বিশ্ববাজারে খাদ্যমূল্য প্রায় ৩০ শতাংশ বেড়েছে। আগামী মাস থেকে পরিস্থিতি আরো ভয়াবহ হতে পারে বলে আভাস দিয়েছে সংস্থাটি। এমন পরিস্থিতিতে ইউক্রেনের খাদ্য উৎপাদন স্বাভাবিক করা এবং রাশিয়ার খাদ্যরপ্তানি ছেড়ে দেয়ার কোনো বিকল্প নেই বলেও জানিয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিব।

তিনি আরও বলেন, 'রাশিয়াকে অবশ্যই ইউক্রেনীয় বন্দরে সংরক্ষিত শস্যের নিরাপদ রপ্তানির অনুমতি দিতে হবে। রুশ খাদ্য এবং সারের অবশ্যই পরোক্ষ বাধা ছাড়াই বিশ্ব বাজারে অবাধ প্রবেশাধিকার থাকতে হবে। সম্মিলিত পদক্ষেপ নিলে আপাতত সঙ্কট ঠেকানো যাবে। রাশিয়া, ইউক্রেন, তুরস্ক, যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপীয় ইউনিয়নের সঙ্গে এ বিষয়ে নিয়মিত যোগাযোগ রাখছি আমি'।

এদিকে বৈঠকে জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী আনালেনা বেয়ারবক বলেন, আসন্ন এ খাদ্য সংকট রাতারাতি দূর হবেনা। জলবায়ু সংকট মোকাবেলা সহ কৃষকদের খরা, বন্যা, এবং চরম বৃষ্টিপাতের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

news24bd.tv/রিমু