অস্ত্র মামলায় পাংশা পৌর কাউন্সিলরের যাবজ্জীবন

সাত বছরের কারাদণ্ড প্রাপ্ত পাংশা পৌর কাউন্সিলর

অস্ত্র মামলায় পাংশা পৌর কাউন্সিলরের যাবজ্জীবন

যশোর প্রতিনিধি

রাজবাড়ীর পাংশার অস্ত্র মামলায় তাজুল ইসলাম (৫০) নামে এক কাউন্সিলরকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। অপর আর এক ধারায় তাকে সাত বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

সোমবার বিকেলে রাজবাড়ীর বিশেষ ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক জেলা ও দায়রা জজ জাকিয়া পারভীন আসামির অনুপস্থিতিতে এ রায় দেন বলে জানায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী উজির আলী।

দণ্ডিত তাজুল ইসলাম পাংশা পৌর শহরের কুড়াপাড়া গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে।

এছাড়াও পাংশা পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী উজির আলী জানায়, ২০১৪ সালের ২১ এপ্রিল তারিখে পাংশা উপজেলার মদিনা ক্লিনিকের পেছনে মেহগনি বাগান থেকে একটি ওয়ান শুটারগান ও তিন রাউন্ড গুলিসহ তাজুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে পাংশা থানার পুলিশ। এ ঘটনায় পরদিন ২২ এপ্রিল তারিখে পাংশা থানার এসআই জাকির বাদী হয়ে পাংশা থানায় অস্ত্র মামলা করেন। মামলার দীর্ঘ সাক্ষ্য প্রমাণ ও কাগজপত্র পর্যালোচনা করে বিচারক রায় ঘোষণা করেন।

আইনজীবী উজির আলী আরও জানায়, রায় ঘোষণার সময় আসামি আদালতে হাজির ছিলেন না। তবে, এ রায়ে তিনি সন্তুষ্ট।

পাংশা পৌরসভার মেয়র ওয়াজেদ আলী জানায়, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের অভিযোগে তাজুল ইসলামকে ২০২৩ সালের ২ মে তারিখে কাউন্সিলরের পদ থেকে বরখাস্ত করে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়। পরে কাউন্সিলর তাজুল ইসলাম উচ্চ আদালতে আপিল করে পদ ফিরে পায়।

মেয়র ওয়াজেদ আলী আরও জানায়, আদালতে তাজুলের যাবজ্জীবন দণ্ডের বিষয়টি তার জানা নেই। রায়ের কাগজপত্র হাতে পেলে স্থানীয় সরকার কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানানো হবে।

news24bd.tv/তৌহিদ

পাঠকপ্রিয়