পঞ্চগড়ে বিএনপি'র ৬ নেতাকর্মীর কারাদণ্ড
পঞ্চগড়ে বিএনপি'র ৬ নেতাকর্মীর কারাদণ্ড

ছাত্রদল, যুবদল ও সেচ্ছাসেবক দলের ৬ নেতাকর্মীকে কারাদণ্ড

পঞ্চগড়ে বিএনপি'র ৬ নেতাকর্মীর কারাদণ্ড

পঞ্চগড় প্রতিনিধি:

পঞ্চগড়ে ২০১৩ সালে ১৮ দলীয় জোটের ডাকা হরতাল ও অবরোধের সময় ভাংচুর ও সরকারি কাজে বাধাঁ দেয়া মামলায় ছাত্রদল, যুবদল ও সেচ্ছাসেবক দলের ৬ নেতাকর্মীকে দুইটি ধারায় ৩ মাস করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।  

বৃহস্পতিবার (২০ জানুয়ারি) বিকেলে অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. মতিউর রহমান এ রায় দেন।  সাজাপ্রাপ্ত ৬ জনের মধ্যে নুরে আলম বাবু (তুর্কী বাবু) পলাতক রয়েছেন। পরে তাদের জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

এ মামলার অপর ৬ আসামিকে বেকসুর খালাস দিয়েছে আদালত।

সাজাপ্রাপ্তরা হলেন-স্বেচ্ছাসেবকদলের যুগ্ম আহবায়ক এটিএম হাসানুজ্জামান পলাশ, জেলা যুবদলের সদস্য মো. সাবুল হক, ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হারুন উর রশিদ, জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবু সালেক ডাবলু, পৌর যুবদলের যুগ্ম আহবায়ক তুর্কী বাবু ও স্বেচ্ছাসেবকদলের সাবেক সদস্য হায়াতুন আলম।  

সাইফুল ইসলাম, সুমন, নহরাল ফরহাদ দোয়েল, মাসুদ রানা, যুবদলের কর্মী পাভেল, মিজানকে বেকসুর খালাস দেন। তবে সাজপ্রাপ্ত পৌর যুবদলের যুগ্ম আহবায়ক তুর্কী বাবু পলাতক রয়েছেন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৩ সালে ১৮ দলীয় জোটের ডাকা হরতাল ও অবরোধের সময় ছাত্রদল, যুবদল ও সেচ্ছাসেবক দলের নেতাকর্মীরা সড়ক অবরোধ করে জেলা শহরের এমআর কলেজ রোড হতে রাস্তার দুই পাশের দোকান পাটে লাঠি ও লোহার রড দিয়ে আঘাত করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করেন।  

এ সময় তারা জেলা শহরের ন্যাশনাল ব্যাংক ও ডাচ বাংলা ব্যাংকে হামলা করে গ্লাস ভাংচুর করেন। পরে তারা মহাসড়ক অবরোধ করে যান চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে। এ সময় তারা সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উপর বল প্রয়োগ করে সরকারি কাজে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে।  

এ ঘটনায় ৭ জনের নামে এবং অজ্ঞাত আরও ১৫/২০ জনকে আসামি করে পঞ্চগড় সদর থানার পরিদর্শক আবুল কালাম আজাদ বাদী হয়ে ২০১৩ সালের ৪ ডিসেম্বর পঞ্চগড় সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।  

পঞ্চগড় সদর থানার এসআই নয়ন কুমার সাহা ২০১৪ সালের ৩১ মার্চ জেলা ১৪ জনের নামে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। বৃহস্পতিবার (২০ জানুয়ারি) এ মামলার রায়ের দিন ধার্য করে আদালত। পরে মামলার ৬ আসামিকে দুইটি ধারায় তিন মাস করে কারাদণ্ড ও অপর ৬ আসামিকে বেকসুর খালাস প্রদান করেন।

আসামি পক্ষের আইনজীবী ও জাতীয়তাবাদী আইনজীবি ফোরাম পঞ্চগড় জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক, এডভোকেট আদম সুফি জানান, আমরা ন্যায় বিচার পাইনি। মামলার নকল কপির জন্য আবেদন করেছি। নকল কপি পেলে জেলা জজ আদালতে আপিল করা হবে।

অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর এরশাদ হোসেন সরকার বলেন, আসামিদের বিরুদ্ধে অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় আদালত ছয় জন আসামিকে ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডে দণ্ডিত করেন।

news24bd.tv/ কামরুল 

;